শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স FD ক্যালকুলেটর

ITR Filing: ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে আয়কর রিটার্ন ফাইল না করলে কি হবে? জেনেনিন বিস্তারিত

Photo of author

By Joydeep

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

ITR Filing: এখনো অনেকেই এরকম রয়েছে যারা মনে করেন যে আয়কর রিটার্ন ফাইল না করলেও কোন ক্ষতি হবে না, যার কারণে তারা আয়কর রিটার্ন ফাইল (Income Tax Return File) করে না। আবার অনেক বেতন ভোগী ব্যক্তিরা মনে করেন যে, বেতন থেকে TDS কেটে নেওয়া হয়, যেটি ফর্ম ১৬-তে দৃশ্যমান তাই আর ITR File করার প্রয়োজন নেই। তবে এটি তাদের একটি ভুল ধারণা। মৌলিক ছাড়ের সীমার বেশি আয় থাকা সমস্ত ব্যক্তিকে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হবে। যদি তারা এই কাজ না করে তাহলে কি হবে? এই নিয়ে বিস্তারিত জেনেনিন আজকের এই প্রতিবেদনে। 

কাদের আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হবে? 

যে সমস্ত ব্যক্তিদের অয় মৌলক ছাড়ের সীমার বেশি তাদের সবাইকে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হবে। ২০২৩-২৪ আর্থিক বছরে ৬০ বছরের কম ব্যক্তিদের জন্য এই সীমা হল ২.৫ লক্ষ টাকা। যে সমস্ত ব্যক্তিদের বয়স ৬০ বছর থেকে ৮০ বছরের মধ্যে, তাদের এই মৌলিক ছাড়ের সীমা হল ৩ লক্ষ টাকা এবং ৮০ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিদের এই সীমা হল ৫ লক্ষ টাকা। এর চেয়ে বেশি আয় হলে তাদেরকে আয়কর রিটার্ন ফাইল করতে হবে।

এছাড়াও, যে সমস্ত ব্যক্তিদের সেভিংস ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ১ কোটি টাকার বেশি ব্যালেন্স আছে, তাদের ক্ষেত্রে আয়কর রিটার্ন ফাইল করা প্রয়োজন। আবার, আপনার নিজের বা অন্য কারো বিদেশ ভ্রমণের জন্য আপনার যদি ২ লক্ষ টাকা খরচ হয়ে থাকে, আপনার বিদ্যুৎ বিল যদি ১ লক্ষ টাকা বা তার বেশি হয় তবুও আয়কর রিটার্ন ফাইল করা আবশ্যক।

আরও পড়ুন: ITR File – আয়কর রিটার্নের ক্ষেত্রে এই ভুলগুলি করলেই বিপদ! এই ৮ ভুল থেকে সাবধান থাকুন!

ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রেও আয়কর রিটার্ন দাখিলের বেশ কিছু নিয়মাবলী রয়েছে। যদি তাদের মোট বিক্রয় বা মোটা টার্নওভার বা মোট প্রাপ্তি ৬০ লক্ষ টাকার বেশি হয় তাহলে তাদেরকে আয়কর রিটার্ন ফাইল করতে হবে। আবার, একজন পেশাদারের মোট প্রাপ্তি ১০ লক্ষ টাকা হলে ITR File করতে হবে। ২৫ হাজার টাকা বা তার বেশি কর সংগ্রহ বা কাটার ক্ষেত্রে, ব্যবসায়ীদের সেভিংস অ্যাকাউন্টে ৫০ লক্ষ টাকার বেশি থাকলে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হবে।

এছাড়াও যদি অগ্রিম কর দেওয়া হয়ে থাকে তবুও আয় এবং করের স্ব-মূল্যায়ন করার জন্য ITR File করতে হবে। তাছাড়া যদি কোনো কারণে আর্থিক ক্ষতি হয় এবং আপনি সেটি চালিয়ে যেতে চান এবং ভবিষ্যতের আয়ের সঙ্গে সামঞ্জস্য করতে চান, তাহলেও নির্দিষ্ট তারিখের আগে ITR File করা প্রয়োজন।

আরও পড়ুন: Income Tax Return File – ফর্ম নং ১৬ কি? ফর্ম নং ১৬ ছাড়া কি ITR ফাইল করা সম্ভব! জেনে নিন বিস্তারিত।

আয়কর রিটার্ন ফাইল না করলে কি হবে? 

আপনি যদি উপরে উল্লেখিত আয়কর (Income Tax) রিটার্নের নিয়মগুলির আয়তায় পড়েন তাহলে অবশ্যই ৩১ জুলাই, ২০২৪ তারিখের মধ্যে আপনাকে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হবে। আপনি যদি কোন কারণবশত এই তারিখের মধ্যে আয়কর রিটার্ন ফাইল না করতে পারেন তাহলে ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৪ পর্যন্ত সময় পাবেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমান জরিমানা এবং ট্যাক্স এর ওপর সুদ দিতে হবে।

আরও পড়ুন: ITR File – ITR জমার সময় ভুল করেছেন? কিভাবে সংশোধন করবেন সঠিক পদ্ধতি দেখে নিন।

আমাদের  হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের  টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us