শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

ITR File: আয়কর রিটার্নের ক্ষেত্রে এই ভুলগুলি করলেই বিপদ! এই ৮ ভুল থেকে সাবধান থাকুন!

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

These mistakes are dangerous when it comes to ITR: ভারতের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা অনুসারে প্রতি বছর ৩১ মার্চ তারিখে শেষ হয় একটি অর্থবর্ষ। সেই সঙ্গে প্রতি বছর ১ এপ্রিল তারিখে নতুন একটি অর্থ বর্ষের সূচনা হয়। চলতি ২০২৪ সালেও তার অন্যথা হয়নি। গত ১ এপ্রিল থেকে শুরু হয়ে গেছে ২০২৪-২৫ অর্থ বছর। সেই সঙ্গে নতুন আর্থিক বছর শুরু হওয়ার ফলে চালু হয়েছে বেশ কিছু নতুন নিয়ম। এর মধ্যে আয়কর জমা দেওয়ার সময় আছে চলে এসেছে। আয়কর দাতাদের কাছে আয়কর প্রদানের বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যদি আয়কর দেওয়ার ক্ষেত্রে কোন ভুল ভ্রান্তি হয়ে যায় সে ক্ষেত্রে নানা সমস্যায় পড়তে হয় আয়কর দাতাকে। এই কারণে আয়কর প্রদান করার সময় এই ৮ টি ভুল থেকে অবশ্যই সাবধান থাকুন। আজ এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে জেনে নিন আয়কর দেওয়ার সময় কোন কোন ৮ টি বিষয় নিয়ে সতর্ক থাকবেন।

আয়করের রিটার্নের সময় এই ভুলগুলি করবেন না

১) আয়কর জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে কোন ফর্মটি নিজের জন্য প্রযোজ্য তা আগে সঠিক ভাবে যাচাই করে নিতে হবে। প্রয়োজন হলে চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টের পরামর্শ অনুসারে নিজের জন্য উপযোগী ফর্মটি বাছতে হবে।

২) কোনো করদাতা যদি এক বছরে দুই বা তার বেশি চাকরির ক্ষেত্র পরিবর্তন করেন, সেক্ষেত্রে প্রতিটি বিষয়ের সংস্থায় তার আয়ের হিসাব পৃথক ভাবে করতে হবে। সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলি থেকে বেতন, বোনাস সহ আরও কিছু টাকা তিনি পেয়ে থাকলে ITR ফাইলিংয়ের সময় সেই সমস্ত হিসেব দেখাত হবে।

৩) কোনো অর্থ বিনিয়োগ থেকে প্রাপ্ত সুদের থেকে আয় হলে সেই আয়ের কথা লেখা থাকতে হবে আইটিআর রিটার্নে। এই আয়ের ক্ষেত্রে টিডিএস সার্টিফিকেট এবং ফর্ম ২৬এএস জমা দেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

৪) ক্রিপ্টোতে বিনিয়োগ থেকে পাওয়া লাভের অঙ্ক করযোগ্য বলে ধরা হয়। এই কারনে আয়কর ফাইল করার সময় বিটকয়েনের লেনদেন সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য নির্ভুল ভাবে দেওয়া উচিত।

অবশ্যই পড়ুন » Don’t Submit ITR File: ভুলেও করবেন না ইনকাম ট্যাক্স ফাইল! নাইলে সমস্যার মুখে পড়বেন।

৫) ফিউচার এবং অপশনে কোনো গ্রাহক যদি ট্রেড করেন বা বিনিয়োগ করেন সেক্ষেত্রে করদাতার আইটিআরে তার লাভ ও ক্ষতি উভয়ই বিচার করে দেখতে হবে।

৬) বিভিন্ন নিয়োগকারী সংস্থা তার কর্মীদের ESOP-র সুবিধা দিয়ে থাকে। তাই কর দেওয়ার সময় সেই ESOP-এর হিসাবটি সঠিক ভাবে করতে হবে। এবং আয়কর আইনে এই সম্পর্কিত কি নিয়ম রয়েছে তা অবশ্যই জেনে এবং বুঝে এই হিসেবটি করা প্রয়োজন।

৭) ভারতীয় আয়কর আইন অনুসারে দানের ক্ষেত্রে কর ছাড়ের সুবিধা পাওয়া যায়। তাই কোন ব্যক্তি যদি কোনো সংস্থাকে, অন্য কোন ব্যক্তিকে বা আত্মীয়কে তার সম্পদ দান করেন সেই হিসাবটি আয়কর প্রদানের সময় সঠিক ভাবে বসাতে হবে

৮) কোনো ক্যাপিটাল গেইন ও কোনো জমি বিক্রি থেকে আয় হলে সেই মুনাফাও আয়কর আইন অনুসারে করযোগ্য বলে বিবেচিত হয়। তাই আয়কর রিটার্নের সময় এই বিষয় গুলি সঠিক তথ্যসহ উল্লেখ থাকা অত্যন্ত প্রয়োজন।

অবশ্যই পড়ুন » Old vs New Tax Regime: নতুন নাকি পুরোনো কর ব্যবস্থা কোনটিতে আপনি বেশি লাভবান হবেন।

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us