শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

Options Trading: সহজ বাংলা ভাষায় অপশন ট্রেডিং বুঝুন, মোটা টাকা আয় করার একটি রাস্তা

Photo of author

By Joydeep

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

Options Trading in Bengali: বর্তমানে অপশন ট্রেডিং একটি আয় করার কৌশল হিসেবে দাড়িয়েছে। অপশন ট্রেডিং করে যেমন মোটা টাকা আয় করা সম্ভব, তেমনি যথেষ্ট জ্ঞান না থাকার কারণে বিরাট ক্ষতিও হতে পারে। এককথায় বলতে Options Trading-এ যেমন লাভ বেশি তেমনি ঝুঁকিও অনেক বেশি। অপশন ট্রেডিং করে টাকা আয় করার জন্য আপনার এর সম্বন্ধে ভালো জ্ঞান এবং সতর্কতার প্রয়োজন। আপনাকে গতিশীল বাজারের লক্ষণ বুঝে বাজার নিচে যাবে নাকি উপরে যাবে তা অনুমান করতে হবে। অনেকেই অপশন ট্রেডিংকে পূর্ণ সময়ের পেশা হিসেবেও নির্বাচন করে। তাহলে চলুন সহজ ভাষায় অপশন ট্রেডিং বুঝি।

অপশন ট্রেডিং কি? সহজ কথায় বুঝুন

ধরুন আপনি একজন কৃষক। আপনি জমিতে ধন চাষ করেছেন এবং আপনার ফসল কাটার সময় হয়ে গেছে। ধরুন এখন ধানের মূল্য আছে প্রতি কেজিতে ১৫ টাক, কিন্তূ আপনি অনুমান করছেন ফসল কাটার পর এর দাম কমতে পারে। এক্ষেত্রে আপনি Put Option কিনতে পারেন। বাজারের মূল্য কমে গেলেও এটি আপনাকে আগের মূল্যে ফলস বিক্রি করার অধিকার দেবে। 

উদাহরণ স্বরূপ, আপনি যদি ধানের মূল্যের ১৫ টাকা কেজি আসা করেন। তাহলে আপনি ১৫ টাকার স্ট্রাইক মূল্য সহ একটি পুট অপশন কিনতে পারেন। এরফলে পরবর্তীকালে ধানের মূল্য ১২ টাকা কেজি হলেও আপনি ১৫ টাকা কেজি দমে বিক্রি করতে পারবেন। এক্ষেত্রে অপশনের জন্য প্রিমিয়াম এই বীমা খরচ হবে। আর যদি ফসলের দাম কমে যায় তাহলে আপনি কেবল অপশন এর মেয়াদ শেষ হবার অপেক্ষা করতে পারেন এবং লাভ বজায় রাখতে পারেন। 

অপশন ট্রেডিং এর কেন্দ্রে একটি অন্তর্নিহিত সম্পদ (যেমন: একটি স্টক, সূচক, বা পণ্য) নিহিত থাকে। Options Contract, স্টকের বিপরীতে, অন্তর্নিহিত সম্পদের মালিকানা প্রতিনিধিত্ব করে না। পরিবর্তে, তারা একটি নির্দিষ্ট দামে কেনার বা বিক্রি করার অধিকার, কিন্তু বাধ্যতা নয়, এমন একটি চুক্তি কেনা বা বিক্রি করে। 

অপশন চুক্তির ধরন

অপশন চুক্তি সাধারণত ২ ধরনের হয়, কল অপশন (Call Option) এবং পুট অপশন (Put Option)।  কল অপশন ধারককে স্ট্রাইক মূল্যে অন্তর্নিহিত সম্পদ কেনার অধিকার দেয়, যখন পুট অপশন ধারককে স্ট্রাইক মূল্যে অন্তর্নিহিত সম্পদ বিক্রি করার অধিকার দেয়।

Call Option

কল অপশন এমন একটি চুক্তি যা আপনাকে একটি নির্দিষ্ট দমে সম্পদ কেনার অধিকার দেয়। যদি একটি সম্পদ এর মূল্য বেড়ে যায়, তাহলে আপনি এই চুক্তি প্রয়োগ করে নির্দিষ্ট দমে সেটি কিনতে পারবেন এবং বাজারের দাম বৃদ্ধির সঙ্গে বিক্রি করে লাভবান হতে পারবেন। আর যদি ওই সম্পদের মূল্য কমে, তাহলে আপনার শুধুমাত্র এই চুক্তির জন্য দেওয়া প্রিমিয়াম হারাবেন। 

Put Option 

কল অপশনের একদম বিপরীত হচ্ছে পুট অপশন। এটি এমন একটি চুক্তি যা আপনাকে একটি নির্দিষ্ট মূল্যে সম্পদ বিক্রি করার অধিকার দেয়। যদি কোনো সম্পদের মূল্য কমে যায়, তাহলে আপনি এই চুক্তি প্রয়োগ করে একটি নির্দিষ্ট মূল্যে ওই সম্পদ বিক্রি করতে পারবেন, এবং তারপর এটিকে নিম্নতর বাজার মূল্যে কিনে লাভ করতে পারবেন। আর যদি সম্পদের মূল্য বেড়ে যায় তাহলে আপনার শুধুমাত্র চুক্তির জন্য দেওয়া প্রিমিয়াম হারাবেন।

প্রিমিয়াম এর ভূমিকা

একটি অপশন চুক্তির মুলুকে তার প্রিমিয়াম বলে। বিভিন্ন কারণ এর ফলে প্রিমিয়াম মূল্য বাড়া কমা হয়। যেমন: স্ট্রাইক মূল্য, মেয়াদ শেষ হওয়ার সময়, অন্তর্নিহিত সম্পদের অস্থিরতা এবং বিদ্যমান বাজারের মনোভাব ইত্যাদি। বাজারের পরিবর্তনশীল গতিশীলতাকে প্রতিফলিত করে প্রিমিয়াম সময়ের সাথে উল্লেখযোগ্যভাবে ওঠানামা করতে পারে।

Options Trading এর কৌশল

অপশন ট্রেডিং করার বেশকিছু কৌশল আছে, যেগুলি অনুসরণ করে আপনি এখান থেকে আয় করতে পারবেন। সাধারণ কিছু কৌশল নিচে উল্লেখ করা হয়েছে: 

কল কেনা: আপনার যদি মনেহয় কোনো সম্পদের দাম বাড়বে তাহলে আপনি এই সম্পদের কল অপশন ক্রয় করে লাভ করতে পারবেন। 

কল বিক্রি: সেলিং কল, রাইটিং কল নামেও পরিচিত। আপনার যখন মনে হবে কোনো সম্পদের মূল্য হ্রাস পাবে, তখন আপনি কল অপশন বিক্রি করে আয় করতে পারবেন।

পুট কেনা: সম্ভাব্য ক্ষতির বিরুদ্ধে হেজ করার জন্য বা কোনো সম্পদের মূল্য হ্রাসের উপর অনুমান করার জন্য পুট অপশন ক্রয় একটি কৌশল। আপনার যদি মনে হয় কোনো সম্পদের মূল্য কমবে, সেক্ষেত্রে আপনি ওই সম্পদের পুট অপশন ক্রয় করে লাভবান হতে পারেন। 

পুট বিক্রি: আপনার যদি মনে হয় কোনো সম্পদের মূল্য বাড়বে, সেক্ষেত্রে আপনি পুট অপশন বিক্রি করে লাভবান হতে পারেন।

আরও পড়ুন: শেয়ারবাজারে ট্রেডিং করার জন্য 5 লক্ষ টাকা পর্যন্ত দেবে রাজ্য সরকার, নিয়মাবলী জেনে নিন।

ঝুঁকি এবং লাভ

Options Trading যেমন মোটা টাক আয় করার সুযোগ দেয়, তেমনি খুব ঝুঁকিপূর্ণ। এখানে লাভের এবং ঝুঁকির কোনো সিমানেই। এখানে বেশিরভাগ লোকের লাভের পরিবর্তে ক্ষতি হয়। আপনি যে অপশন প্রিমিয়াম নেবেন সেটির মূল্য শূন্য হতেও পারে, এরফলে আপনি অর্থ হারাবেন। অপশন ট্রেডিং করার জন্য শুধুমাত্র কৌশল বা গতিশীল বাজারের ইঙ্গিত বুঝলেই হবে না। এখানে লাভবান হবার জন্য আপনাকে রিস্ক ম্যানেজমেন্ট ভালোভাবে জানতে হবে।

আরও পড়ুন: শেয়ার বাজার কী ? জেনেনিন শেয়ার বাজার সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য।

অপশন ট্রেডিং এর পদ্ধতি

বর্তমানে বাজারে অনেক মোবাইল অ্যাপ রয়েছে যেখান থেকে আপনি অপশন ট্রেডিং করতে পারবেন। এরজন্য আপনাকে প্রথমে ডিমেট অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। এরপর আপনি আপনার ডিমেট অ্যাকাউন্টে টাকা ভরে অপশন ট্রেডিং করতে পারবেন। 

Options Trading করার জন্য আপনাকে কিছু গুরুত্বপূর্ন বিষয়ে ভালো জ্ঞান রাখতে হবে। যেমন, প্রাইস অ্যাকশন, অপশন চেন, বিভিন্ন ইন্ডিকেটর এর ব্যাবহার, রিস্ক ম্যানেজমেন্ট ইত্যাদি। 

আরও পড়ুন: UPStock অ্যাপ থেকে এইভাবে বিনামূল্যে ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খুলুন।

উপসংহার ~

অপশন ট্রেডিং শিখে আপনি ভাল আয় করতে পারেন, কিন্তূ একটি একটি ঝুঁকিপূর্ণ বিকল্প। এখন থেকে লাভবান হবার জন্য আপনার যথেষ্ট জ্ঞান থাকা প্রয়োজন, তানাহলে আপনার আর্থিক ক্ষতি হবে। সহজ উদাহরণ সহ অপশন ট্রেডিং সম্পর্কে উপরে আলোচনা করা হয়েছে। অপশন হলো কোনো স্টক বা সম্পদকে নির্দিষ্ট দামে কেনার বা বিক্রি করার অধিকার, কিন্তু বাধ্যতা নয়, এমন একটি চুক্তি কেনা বা বিক্রি করে।

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us