শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড কি? সুবিধা ও অসুবিধা, সেরা মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড| Mid Cap Mutual Fund In Bengali

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

Mid Cap Mutual Fund In Bengali: যারা বিনিয়োগ করতে চায় তারা শুরুর দিকে মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ নিয়ে খুব আগ্রহী। শেয়ার বাজারের তুলনায় মিউচুয়াল ফান্ড বিনিয়োগ কম ঝুঁকিপূর্ণ। মিউচুয়াল ফান্ডে আপনি আপনার টাকা বিনিয়োগ করে কয়েক বছরের মধ্যে আপনি আপনার টাকাকে কয়েক গুণ বৃদ্ধি করতে পারেন। মিউচুয়াল ফান্ডের অনেক প্রকারভেদ রয়েছে এরও একটি প্রকার হলো মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড। এই পোষ্টের মাধ্যমে জানতে পারবেন মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড কি?, মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডের সুবিধা ও অসুবিধা এবং কারা মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করবেন? আরোও জানতে পারবেন ভারতের সেরা মিড মিউচুয়াল ফান্ড কোনগুলি। মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড কী? (Mid Cap Mutual Fund In Bengali)

মার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন অনুযায়ী মাঝারি মাপের কোম্পানিগুলি হল ভারতের মিড ক্যাপ কোম্পানি। যে সব কোম্পানির ৫০০ থেকে ১০ হাজার কোটি টাকা পর্যন্ত Business Revenue সেই সব কোম্পানিগুলি হল মিড ক্যাপ কোম্পানি। ভারতের রেগুলারিটি বোর্ড SEBI (Securities and Exchange Board of India) মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড সম্পর্কে একটি ধারণা প্রকাশ করেন। মার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন অনুযায়ী ১০১ থেকে ২৫০তম যে কোম্পানিগুলি রয়েছে সেগুলি হল মিড ক্যাপ কোম্পানি। মিড ক্যাপ কোম্পানিগুলোতে অর্থাৎ তুলনামূলক বড় কোম্পানিগুলিতে যে মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করছেন সেটি হল লার্জ ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড।

লার্জ ক্যাপ কোম্পানিমার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন অনুযায়ী ১ থেকে ১০০তম যে কোম্পানিগুলি রয়েছে সেগুলি হল লার্জ ক্যাপ কোম্পানি।
মিড ক্যাপ কোম্পানিমার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন অনুযায়ী ১০১ থেকে ২৫০তম যে কোম্পানিগুলি রয়েছে সেগুলি হল মিড ক্যাপ কোম্পানি।
স্মল ক্যাপ কোম্পানিমার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন অনুযায়ী ২৫১ এর পর থেকে যে কোম্পানিগুলি রয়েছে সেগুলি স্মল হল ক্যাপ কোম্পানি।

কারা কারা মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করবেন

মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডগুলিতে কারা বিনিয়োগ করবেন অর্থাৎ মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করলে কারা বেশি লাভবান হবেন চলুন বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

  • যারা ফিক্সড ডিপোজিটের থেকে বেশি রিটার্ন চান তারা এই মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করতে পারেন।
  • মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করার ক্ষেত্রে শুরুতে লার্জ ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করবেন তারপর মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করবেন।
  • আপনার মোট টাকার ৬০ শতাংশ লার্জ ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করার পর বাকি টাকাটা আপনি মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করতে পারেন।
  • সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল যারা বাজার সম্পর্কে একটু আধটু খবরাখবর রাখেন তারা মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে ইনভেস্ট করতে পারেন।
  • যদি আপনি বাজার সম্পর্কে কোনো খবরা-খবর না রাখেন এবং আপনি ভুল সময় টাকা বিনিয়োগ করেন তাহলে আপনার বড় অংকের লস হতে পারে।
  • মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডের তুলনায় স্মল ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে রিস্কের পরিমাণ বেশি, তাই যারা বেশি রিস্ক নিতে চান না তারা মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করতে পারেন।

আরও পড়ুন: মিউচুয়াল ফান্ডে কিভাবে বিনিয়োগ করবেন?

মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডের সুবিধা (Mid Cap Mutual Fund Advantage)

মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডের সুবিধাগুলি হল-

  • যখন মার্কেট উপরে যায় তখন লার্জ ক্যাপের তুলনায় মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড দ্রুত গতিতে উপরে যায় অর্থাৎ লার্জ ক্যাপের তুলনায় ইন্টারেস্ট রেট বা টাকা বৃদ্ধির পরিমাণ মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে বেশি হবে।
  • স্মল ক্যাপের তুলনায় মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে কম রিস্ক।
  • লার্জ ক্যাপের তুলনায় মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে টাকা বৃদ্ধি হওয়ার বেশি সুযোগ রয়েছে।
  • মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে আপনি যদি লং টার্মের জন্য ইনভেস্টমেন্ট করেন তাহলে একটি ভালো পরিমানের রিটার্ন পাবেন।

আরও পড়ুন: স্মল ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড কী? সুবিধা ও অসুবিধা, সেরা স্মল ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড

আরও পড়ুন: লার্জ ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড কি? সুবিধা ও অসুবিধা, সেরা লার্জ ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড

মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডের অসুবিধা (Mid Cap Mutual Fund Disadvantage)

মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডের অসুবিধাগুলি হল-

  • যদি মার্কেট উপরে যাওয়ার বদলে নিচে যায় অর্থাৎ মার্কেট নিচে নামতে শুরু করে তাহলে লার্জ ক্যাপের তুলনায় মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড দ্রুত গতিতে নিচে নামে অর্থাৎ লার্জ ক্যাপের তুলনায় মিড ক্যাপে টাকা হ্রাসের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়।
  • লার্জ ক্যাপের তুলনায় মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে রিস্কের পরিমাণ বেশি।
  • স্মল ক্যাপের তুলনায় মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডে টাকা বৃদ্ধি হওয়ার কম সুযোগ রয়েছে।
  • মিড ক্যাপ কোম্পানিগুলির Growth স্মল ক্যাপ কোম্পানিগুলির থেকে কম।
  • মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড স্মল ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ডের তুলনায় কম রিটার্ন দেয়।

কয়েকটি সেরা মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড (Best Mid Cap Mutual Fund)

সেরা কতগুলো মিড ক্যাপ কোম্পানি যে কোম্পানিগুলি বিগত বছর গুলিতে ভালো পারফরম্যান্স করেছে সেগুলো হল-

Motilal Oswal Mid cap Fund

সর্বনিম্ন বিনিয়োগের পরিমাণ₹ ৫০০ টাকা
AUM₹ ৪,৫০৮ কোটি টাকা
1 year Return৩৩.০০%

SBI Magnum Mid Cap Fund

সর্বনিম্ন বিনিয়োগের পরিমাণ₹ ৫,০০০ টাকা
AUM₹ ১০,১৪৫ কোটি টাকা
1 year Return২৬.৩০%

Nippon India Growth Fund

সর্বনিম্ন বিনিয়োগের পরিমাণ₹ ১০০ টাকা
AUM₹ ১৬,৩৫৩ কোটি টাকা
1 year Return৩৩.০০%

Edelweiss Mid Cap

সর্বনিম্ন বিনিয়োগের পরিমাণ₹ ৫,০০০ টাকা
AUM₹ ৩,০১১ কোটি টাকা
1 year Return২৬.১০%

Kotak Emerging Equity Fund

সর্বনিম্ন বিনিয়োগের পরিমাণ₹ ১০০ টাকা
AUM₹ ২৭,৮৭১ কোটি টাকা
1 year Return২৪.৮০%

Axis Mid Cap Fund

সর্বনিম্ন বিনিয়োগের পরিমাণ₹ ১০০ টাকা
AUM₹ ২০,৮০৪.৯২ কোটি টাকা
1 year Return২০.৭৮%

HDFC Mid Cap Fund

সর্বনিম্ন বিনিয়োগের পরিমাণ₹ ১০০ টাকা
AUM₹ ৩৯,২৯৫.৭১ কোটি টাকা
1 year Return৩৯.২৫%

Disclaimer

এই পোস্টের মাধ্যমে আপনি মিড ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারলেন কিন্তু মনে রাখবেন সমস্ত বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সুবিধা এবং অসুবিধা রয়েছে। সমস্ত বিনিয়োগ ঝুঁকিপূর্ণ। কোনো বিনিয়োগ করার পূর্বে অবশ্যই বিনিয়োগের সুবিধা-অসুবিধা এবং ঝুঁকি সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে তারপর বিনিয়োগ করবেন।

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের টেলিগ্রাম এবং হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের টেলিগ্রাম গ্রুপJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us