শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

Vikas Lifecare Share: বিনিয়োগ করলেই কি মালামাল? মাত্র ৬ টাকার এই স্টক ১৫০ শতাংশ রিটার্ন দিয়েছে

Photo of author

By Joydeep

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

Vikas Lifecare Share: যেখানে আগামীকাল শেয়ারবাজারে দুর্বলতা দেখা গেছে, যেখানে মাত্র ৬ টাকা মূল্যের এই পেনি স্টক ১৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। গত কয়েকদিন ধরেই বিকাশ লাইফকেয়ার এর স্টক বিনিয়োগকারীদের ভালো রিটার্ন দিচ্ছে। যেমন পেনি স্টক অল্প সময়েই বিনিয়োগকারীদের বাম্পার রিটার্ন দিয়ে ধনী করে তুলে, তেমনি এতে ঝুঁকির পরিমাণও অনেক বেশি থাবে। তবেকি এই শেয়ারে বিনিয়োগ যাবেনা? নাকি এই শেয়ারে বিনিয়োগ করলে বাম্পার রিটার্ন পাবেন। বিস্তারিত বোঝার জন্য সম্পূর্ন খবরটি পড়ুন। 

মাত্র ৬ টাকার এই স্টক ১৫০ শতাংশ রিটার্ন দিয়েছে

৭ মে, ২০২১ Vikas Lifecare Share এর মূল্য ২.৪৫ টাকার নিম্ন থেকে ১৫০ শতাংশ রিটার্ন দিয়েছে বিনিয়োগকারীদের। এছাড়াও গতকাল যখন পুরো বাজার দুর্বল ছিল সেখানে ১৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে এই শেয়ারের মূল্য। গত ৫ দিনেই এই পেনি স্টকটি বিনিয়োগকারীদের ৩২ শতাংশ রিটার্ন দিয়েছে। এবং গত ৬ মাসে এর মূল্য দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে। ১৩ জুলাই, ২০২৩ এর মূল্য ছিল ৩.০৫ টাকা, যা বর্তমানে প্রায় ১১৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৬.৭০ টাকার স্তরে পৌঁছেছে। বিকাশ লাইফকেয়ার এর শেয়ারের ৫২ সপ্তাহের সর্বোচ্চ ৭.০৫ টাকা এবং ৫২ সপ্তাহের সর্বনিম্ন ২.৭০ টাকা।

আরও পড়ুন: টাকা দ্বিগুণ না, ১১ গুন বৃদ্ধি হয়েছে এই শেয়ারে! বিশেষজ্ঞরা অনুমান করছেন ভবিষ্যতেও বাম্পার রিটার্ন দেবে।

আরও ব্যাবসা বাড়াবে এই কোম্পানি

Vikas Lifecare Ltd জানিয়েছে যে, তাদের কার্যক্রম সম্প্রসারণের জন্য নতুন জমি কিনেছে। তারা রাজস্থানের শাহজাহানপুরের RIICO শিল্প এলাকায় তাদের কারখানার কাছে 1800 বর্গ মিটার জমি কিনেছে। এই নতুন জমিতে কোম্পানিটি তাদের কারখানার ক্ষমতা বাড়াবে এবং পলিমার এবং রাবার যৌগের ব্যবসা সম্প্রসারণ করবে। এতে কোম্পানির উৎপাদন বাড়বে এবং তারা নতুন বাজারে প্রবেশ করতে পারবে। অর্থাৎ, বিকাশ লাইফ কেয়ার লিমিটেড তাদের ব্যবসা আরও বড় করার জন্য নতুন জমি কিনেছে। তারা তাদের কারখানা এবং পণ্য পরিসর বাড়াবে।

আরও পড়ুন: Share Market – বিনিয়োগকারীদের ধনী করেছে ২০২৩ সালে, এই ৫টি পেনি স্টক সম্পর্কে জেনেন?

পেনি স্টকে যেমন বিনিয়োগ খুবই ঝুঁকিপূর্ণ, তেমনি এই ধরনের শেয়ার উচ্চ রিটার্নও দেয়। পেনি স্টক মনে হচ্ছে ছোটো কোম্পানি যেগুলি ভবিষ্যতে আরও অনেক বড়ো হতে পারে। অন্যদিকে বড়ো কোম্পানিগুলো যে বাড়ার বেড়ে গেছে, এরপর আর অতটা না বাড়তেও পারে। এর কারণে পেনি স্টকে বিনিয়োগ করে বেশি রিটার্ন পাওয়াযায়। আবার এগুলি ছোট কোম্পানি হওয়ায় বন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভবনা থেক, এক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীরা ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তাই কম মূল্যের শেয়ারে বিনিয়োগ করার আগে ভালোভাবে কোম্পানির সম্পর্কে রিসার্চ করতে হয়। অধিক ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে এই ধরনের শেয়ারে অল্প পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ করা ভালো বলে মনে করা হয়।

আরও পড়ুন: Penny Stock – পেনি স্টক কি? জানুন এর আসল সত্য! বিনিয়োগ করা কি উচিত দেখে নিন বিস্তারিত।

দাবিত্যাগ (Disclaimer)

এই নিবন্ধটি শুধুমাত্র তথ্য ও শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়েছে। এটি কোনোভাবেই বিনিয়োগ করার জন্য পরামর্শ প্রদান করে না। আপনার বিনিয়োগ সিদ্ধান্তগুলি আপনার নিজের গবেষণা এবং ঝুঁকি সহনশীলতার উপর ভিত্তি করে নিতে হবে। আপনার বিনিয়োগের ফলাফলের জন্য ফাইনান্স বার্তা কোনোভাবেই দায়ী থাকবে না।

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us

Leave a Comment