শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স FD ক্যালকুলেটর

এই ছোট্ট ভুলের কারণে FD-তে ক্ষতির সম্ভাবনা, আগেথেকে জেনে রাখা আবশ্যক

Photo of author

By Joydeep

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

FD-তে বিনিয়োগ করলে কোনো রকম ঝুঁকি থাকে না। তাই আমরা অনেকেই নিজেদের ভবিষ্যতের জন্য এতে বিনিয়োগ করে থাকে। কিন্তূ কিছু ছোট্ট ভুলের কারণে FD-তেও ক্ষতির সম্ভবনা থাকবে। আপনাদের যাতে এই ক্ষতি না নয়, তারজন্য আজকে আমরা এই বিষয়ে বিস্তারিত জানবো। আপনিও যদি একজন এফডিতে বিনিয়োগ করেন, তাহলে অবশ্যই পুরো নিবন্ধটি পড়ুন। 

FD-তে ক্ষতির সম্ভাবনা 

শেয়ার বাজারে ঝুঁকি না নিয়ে অনেকে FD-তে বিনিয়োগ করতে বেশি পছন্দ করে। এফডিতে অ্যাকাউন্ট খোলার পক্রিয়াও খুব সহজ। এতে আপনি একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা একসঙ্গে বিনিয়োগ করেন একটি নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য। ওই মেয়াদ পূর্ন হলে আপনি বিনিয়োগ করা টাকার সঙ্গে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ সুদ পান। 

কিন্তূ কিছু ভুলের কারণে আপনার FD-তে বিনিয়োগ করা টাকাও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। যেমন ধরুন, মেয়াদের আগে টাকা তোলার জন্য জরিমানা আবার কম রিটার্ন পাওয়া। এই ধরনের কিছু কারণের ফলে এফডিতেও আপনার ক্ষতি হয়। খাতিহবার কারণগুলি নিচে বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন: দ্রুত টাকা বাড়াতে চান? ব্যাঙ্কের FD-এর পরিবর্তে RBI বন্ডে বিনিয়োগ করুন। রইল বিস্তারিত তথ্য।

কম সুদে বেশি জরিমানা 

FD-তে আপনাকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য টাকা বিনিয়োগ করতে হয়। ওই মেয়াদ পূর্ন হবার আগে, কোনো বিশেষ সমস্যার জন্য যদি আপনি টাকা তুলতে চান তাহলে আপনাকে FD ভাঙতে হবে। এক্ষেত্রে আপনাকে জরিমানা দিতে হবে। আপনি যে এফডিতে বিনিয়োগ করেছেন তার সুদের তুলনায় জরিমানা বেশি হলে আপনার অর্থের ক্ষতি হবে। 

ব্যাংক ডুবে গেলে 

সহজে কোনো ব্যাঙ্ক ডুবে না। কিন্তূ অতীতে এরকম কিছু পরিস্তিতি দেখা গেছে। তাই কোনো ব্যাঙ্কের FD-তে বিনিয়োগ করার আগে এই ব্যাংকর খবরাখবর রাখুন বা কোনো বিশ্বস্ত ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট খুলুন। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, কোনো ব্যাঙ্ক ডুবে যাবার ক্ষেত্রে ৫ লক্ষ্য টাকা পর্যন্ত বীমা করা যায়। এক্ষেত্রে আপনি যদি ১০ লক্ষ্য টাকার FD করেন তাহলে ব্যাঙ্ক পতন হলে আপনি ৫ লক্ষ্য টাকা ফেরত পাবেন এবং আপনার ৫ লক্ষ্য টাকা ক্ষতি হবে। 

মুদ্রাস্ফীতির হার বাড়লে

যেহেতু এফডিতে সুদের হার স্থির থাকে, তাই ভবিষ্যতে বাজারে মুদ্রাস্ফীতির হার বাড়লেও আপনার সুদ একই থাকবে। ধরুন ভবিষ্যতে মুদ্রাস্ফীতির হার বেড়ে ৬ শতাংশ হয়েছে। কিন্তূ আপনার FD-র সুদের হার যদি ৫ থেকে ৬ শতাংশ হয়। এক্ষেত্রে কম রিটার্নের জন্য আপনার ক্ষতি হতে পারে।  

কম রিটার্ন 

ব্যাংকে ফিক্সড ডিপোজিট করলে যেমন ঝুঁকি কম তেমনি এতে রিটার্নও কম। FD এর তুলনায় ভালো স্টকে বিনিয়োগ করলে বা ভালো মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করলে অনেক বেশি রিটার্ন পাওয়ার সম্ভবনা থাকে। তাই ব্যাবসায়ীরা সবসময় শেয়ার বাজারে বা মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করার পরামর্শ দেয়। 

আরও পড়ুন: FD Limit – ভুল করেও ফিক্সড ডিপোজিটে এর থেকে বেশি টাকা রাখবেন না, নইলে সরকারকে দিতে বিপুল পরিমাণ ট্যাক্স।

উপসংহার ~ 

শেয়ার বাজারের তুলনায় ফিক্সড ডিপোজিটে (FD) খুজির পরিমাণ খুব কম। কিন্তূ কম ঝুঁকিপূর্ণ হওয়া সত্বেও কিছু ছোট্ট ভুলের কারণে আপনার এতে ক্ষতি হতে পারে। যেমন, কম সুদে বেশি জরিমানা, ব্যাংক ডুবে গেলে, মুদ্রাস্ফীতির হার বাড়লে, কম রিটার্ন পাওয়ার জন্য ইত্যাদি।

*এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us

2 thoughts on “এই ছোট্ট ভুলের কারণে FD-তে ক্ষতির সম্ভাবনা, আগেথেকে জেনে রাখা আবশ্যক”

Leave a Comment