শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স FD ক্যালকুলেটর

বন্ধ হয়ে যাবে পোস্ট অফিসের একাউন্ট! নতুন নোটিশ জারি করল পোস্ট অফিস এক্ষুনি করুন এই কাজ।

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

Post Office has issued a new notice: বর্তমানে ভারতীয় নাগরিকদের গুরুত্বপূর্ণ কাজকর্মের জন্য যে নথি গুলির একান্ত প্রয়োজন হয়, তার মধ্যে অন্যতম একটি হলো প্যান কার্ড। আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত যে কোন কাজ কর্মের জন্যই প্যান কার্ড অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাংক, পোস্ট অফিস বা অন্য যে কোনো স্থানে আর্থিক কাজকর্ম পরিচালনার জন্য কেওয়াইসি জমা দিতে হয়। কেওয়াইসি জমা দেওয়ার সময় সচিত্র পরিচয় পত্র হিসেবে আধার কার্ড এবং আর্থিক লেনদেনের সুবিধার জন্য প্যান কার্ডের নথিও জমা দেওয়া একান্ত গুরুত্বপূর্ণ।

পোষ্ট অফিসের নতুন নির্দেশ

তবে এবার পোস্ট অফিসের তরফ থেকে পাওয়া গেল একটি বিশেষ নির্দেশিকা। পোস্ট অফিসের তরফ থেকে জানানো হয়েছে বহু গ্রাহকদের ক্ষেত্রে কেওয়াইসি জমা দেওয়া থাকলেও প্যান কার্ডের সঙ্গে অ্যাকাউন্টের নাম অথবা জন্ম তারিখের কিছু পার্থক্য রয়েছে। ভারতীয় ডাক বিভাগের তরফ থেকে জানানো হয়েছে এই ধরনের কোন ভুল যদি থাকে সেক্ষেত্রে বন্ধ করে দেওয়া হবে ডাকঘরের অ্যাকাউন্ট। এছাড়াও কি হয়েছে জমা দেওয়ার সময় শুধুমাত্র প্যান কার্ডের নথি জমা দিলেই চলবে না, সেই প্যান কার্ডটি আদৌ সচল আছে কিনা তা অবশ্যই যাচাই করে দেখে নিতে হবে। অন্যথায় অচল প্যান কার্ডের নথি দেওয়ার কারণেও বন্ধ হতে পারে পোস্ট অফিসের অ্যাকাউন্ট। সেভিংস অ্যাকাউন্টের লেনদেন সংক্রান্ত কাজগুলিও আর করা সম্ভব হবে না। এর ফলে স্বাভাবিক ভাবেই বিপাকে পড়বেন সাধারণ গ্রাহকরা।

জেনে রাখুন » Post Office Interest Rate: পোস্ট অফিসের নতুন সুদের হার! কোন স্কিমে কত সুদ পাবেন? দেখে নিন

আয়কর দপ্তরের নির্দেশিকা

বর্তমানে আয়কর দপ্তরের প্যান কার্ড সংক্রান্ত কাজগুলি করে প্রোটিন ই-গভ টেকনোলজিস প্রাইভেট লিমিটেড। এটি আগে এনএসডিএল নামে পরিচিত ছিল। এই সংস্থার কাছে দেশের সকল নাগরিকের প্যান কার্ড সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য রয়েছে। বর্তমানে ডাকঘরের কোর ব্যাঙ্কিং সিস্টেম বা সিবিএসের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে প্রোটিনকে। সম্প্রতি আয়কর দপ্তর এই সংস্থাকে নির্দেশ দিয়েছে ডাকঘরের সমস্ত গ্রাহকদের প্যান কার্ডের বিস্তারিত তথ্য পর্যালোচনা করতে। আইকর দপ্তরের এই নির্দেশিকা অনুসারে মোট চারটি ধাপে প্যান কার্ড পর্যালোচনা করবে প্রোটিন। এই ধাপ গুলি হল-

  • প্যান নম্বরটি চালু বা কার্যকর কি না সেটি যাচাই করা হবে। সেটি যদি ভুয়ো, ডিলিটেড বা ডিঅ্যাক্টিভেটেড প্যান কার্ড হয় বা তার রেকর্ড পাওয়া না যাই তবে সেই তথ্য আয়কর দপ্তরকে জানাবে প্রোটিন।
  • গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে থাকা নামের সঙ্গে প্যানের তথ্য মিলিয়ে দেখা হবে।
  • গ্রাহকের দেওয়া জন্ম তারিখের সঙ্গে প্যানে থাকা জন্ম তারিখ মেলানো হবে।
  • গ্রাহকের আধার ও প্যান সংযুক্তিকরণ করা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে।

ডাক বিভাগের কর্তারাও জানিয়েছেন এই বিষয়টিকে কার্যকর করতে প্রযুক্তিগত কোর ব্যাঙ্কিং সিস্টেমেও নানা পরিবর্তন আনা হচ্ছে। যদি কোন গ্রাহকের প্যান কার্ড ভ্যালিড থাকে অথচ প্যান কার্ডের সঙ্গে গ্রাহকের নাম বা জন্ম তারিখ না মেলে, সে ক্ষেত্রে পোস্ট অফিস সেই অ্যাকাউন্টকে ভ্যালিড বলে গ্রহণ করতে পারবে না। এছাড়াও যে সব গ্রাহকদের প্যান কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ড সংযুক্ত করা থাকবে না, তাদের টিডিএস কাটারও নির্দেশ দিয়েছে আয়কর দপ্তর।

অবশ্যই পড়ুন » Post Office FD: পোস্ট অফিসে ৫০ হাজার টাকা জমা রেখে কত টাকা রিটার্ন পাবেন? দেখে নিন হিসাব।

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us