শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

PPF Investment: এই ২টি পদ্ধতিতে পিপিএফ-এ বিনিয়োগ করে আপনিও হতে পারেন কোটিপতি

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

Two Ways to Invest in PPF: বিনিয়োগের ক্ষেত্রে শেয়ার মার্কেট মিউচুয়াল ফান্ডে ঝুঁকি রয়েছে কিন্তু আমাদের এমন বিনিয়োগ দেখতে হবে যেখানে ঝুঁকি একেবারেই নেই এবং কম্পাউন্ডিং এরও সুবিধা রয়েছে। পিপিএফ বা পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ডে বিনিয়োগে কোন ঝুঁকি নেই এবং কম্পাউন্ডিং এরও সুবিধা রয়েছে। পিপিএফ কেন্দ্র সরকার দ্বারা পরিচালিত একটি সরকারি প্রকল্প।

পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড (পিপিএফ) কি?(PPF account details in bengali)

পিপিএফ বা পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড কেন্দ্র সরকার দ্বারা পরিচালিত একটি সরকারি বিনিয়োগ প্রকল্প। পিপিএফ এ আয়কর ছাড় পাওয়া যায়, খুব ভালো রিটার্ন পাওয়া যায় যা সম্পূর্ণ ট্যাক্স ফ্রি। পিপিএফ এ লং টার্মে ইনভেস্টমেন্টের ক্ষেত্রে বাম্পার রিটার্ন পাওয়া যায়।

কীভাবে কোটিপতি হওয়া যায়? (How to become a millionaire?)

আপনার উপার্জন করা টাকা সঞ্চয়ের পাশাপাশি বিনিয়োগ করাও প্রয়োজন। অভিজ্ঞ আর্থিক বিশেষজ্ঞদের মত অনুযায়ী সঞ্চয়ের পাশাপাশি বিনিয়োগ করা প্রয়োজন। অর্থ বিনিয়োগ করার জন্য শেয়ার মার্কেট মিউচুয়াল ফান্ড রয়েছে কিন্তু সেগুলি ঝুঁকিপূর্ণ আমাদের এমন একটি বিনিয়োগ প্রকল্প দেখতে হবে এখানে ঝুঁকির পরিমাণ নেই এবং কম্পাউন্ডিং এরও সুবিধা রয়েছে। আর এরকম একটি বিনিয়োগ প্রকল্প হলো পিপিএফ। পিপিএফ এ আপনি প্রতি বছর সর্বোচ্চ ১.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করতে পারবেন। ম্যাচুরিটির সময় ১ কোটি টাকা রিটার্ন পাওয়ার জন্য আপনার অবশ্যই ধৈর্য থাকা প্রয়োজন কারণ ১ কোটি টাকা রিটার্ন পাওয়ার জন্য লং টার্মে বিনিয়োগ করতে হবে। এছাড়াও আপনি প্রতি মাসে কত টাকা বিনিয়োগ করছেন সেটাও গুরুত্বপূর্ণ। পিপিএফ এ ম্যাচুরিটির সময়কাল হলো ১৫ বছর এছাড়াও আপনি চাইলে আপনার বিনিয়োগ আরও পাঁচ বছর বৃদ্ধি করতে পারেন

পিপিএফ-এ বিনিয়োগ করে কোটিপতি হওয়ার দুটি পদ্ধতি(Two Ways to Invest in PPF)

আপনিও কি পিপিএফ এ বিনিয়োগ করে কোটিপতি হতে চাইছেন তাহলে নিম্নলিখিত এই দুটি পদ্ধতি অনুসরণ করুন তাহলেই আপনি পিপিএফ এ বিনিয়োগ করে কোটিপতি হতে পারবেন।

★ ১) পিপিএফ থেকে ১ কোটি টাকা রিটার্ন পাওয়ার জন্য যতক্ষণ না পর্যন্ত আপনার ১ কোটি টাকা হচ্ছে ততক্ষণ বিনিয়োগ করা চালিয়ে যেতে হবে।

আপনি যদি কর্মজীবনের শুরুতে বিনিয়োগ করা শুরু করেন এবং আপনি যদি ৩৫ বছর বিনিয়োগ করেন তাহলে আপনাকে মাসিক ৪,৫৮৫ টাকা ইনভেস্টমেন্ট করতে হবে

আপনি যদি ২৫ বছর বিনিয়োগ করতে চান তাহলে আপনাকে মাসিক ১০,৭২০ টাকা নিয়োগ করতে হবে। আপনি যদি ২৩ বছর বিনিয়োগ করতে চান তাহলে আপনাকে মাসিক ১২,৫০০ টাকা ইনভেস্টমেন্ট করতে হবে।

আরোও পড়ুন » পিপিএফ না মিউচুয়াল ফান্ড কোনটি আপনার জন্য ভালো কোনটিতে বিনিয়োগে বেশি রিটার্ন পাবেন

★ ২) ১৫ বছর বিনিয়োগের পরেও যদি আপনার টাকা ১ কোটিতে না পৌঁছায় তাহলে আপনার টাকা পিপিএফ এ জমা রেখে দিতে হবে যতক্ষণ না পর্যন্ত আপনার টাকায় ১ কোটিতে পৌঁছায়।

উদাহরনসরূপ: কোন ব্যক্তি যদি প্রতি মাসে ৬,২৭০ টাকা বিনিয়োগ করে ১৫ বছর পর্যন্ত তাহলে ম্যাচুরিটির পরিমাণ হবে ২১.৮৭ লাখ টাকা। এরপর ওই ব্যক্তি যদি ২১.৮৭ লাখ টাকাটা পিপিএফ একাউন্টে ২০ বছরের জন্য ২০ রাখেন তাহলে সুদ সমেত কোটি টাকা রিটার্ন পাবে।

পিপিএফ সম্পর্কিত বিস্তারিত একটি পোস্ট আমাদের ওয়েবসাইটে রয়েছে, আপনি চাইলে সেটা দেখতে পারেন ⬇️

পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড (পি.পি.এফ) কী? পিপিএফ একাউন্ট সম্পূর্ণ তথ্য

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের টেলিগ্রাম এবং হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের টেলিগ্রাম গ্রুপJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us

Leave a Comment