শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

PMJJBY In Bengali: প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনা! যোগ্যতা, সুবিধা ও আবেদন পদ্ধতি দেখে নিন।

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

Pradhan Mantri Jeevan Jyoti Bima Yojna: ভারত সরকার দ্বারা পরিচালিত একটি জনপ্রিয় জীবনবীমা হল প্রধানমন্ত্রী জীবনজ্যোতি বীমা যোজনা। ২০১৫ সালে ভারত সরকার এই বীমার শুভ সূচনা করেন। এই বীমার মাধ্যমে দেশের ১৮ থেকে ৫০ বছর বয়সের নাগরিকরা বছরে মাত্র ৪৩৬ টাকার অধীনে ২ লক্ষ টাকার জীবন বীমা কভারেজ পেয়ে যাবে। LIC সহ অন্যান্য বীমা কোম্পানিগুলির সহযোগিতায় এবং ব্যাংকের সহযোগিতায় ভারত সরকার এই বীমা প্রকল্পের সূচনা করেন। আজকের এই প্রতিবেদন থেকে প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা (PM Jeevan Jyoti Bima) সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন কারা আবেদন করতে পারবে? কিভাবে আবেদন করবেন? কি কি সুবিধা পাবেন? সমস্ত কিছু জানুন।

প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনা (PMJJBY)

২০১৫ সালে ভারত সরকার একটি সমীক্ষার মাধ্যমে দেখেছিলেন সেই সময় দেশের মাত্র ২০ শতাংশ ব্যক্তির জীবন কভারেজ ছিল। কারণ LIC সহ অন্যান্য জীবন বীমা সংস্থার থেকে জীবন বীমা কভারেজ নেওয়ার জন্য গ্রাহকদের অনেক বেশি টাকা প্রিমিয়াম দিতে হতো। তাই ২০১৫ সালে কেন্দ্র সরকার প্রধানমন্ত্রীর জীবন জ্যোতি বীমা যোজনার সূচনা করেন। এই প্রকল্পের প্রধান উদ্দেশ্য ছিল নিম্নবৃত্ত গরিব পরিবারেরাও যাতে জীবন বীমা সুবিধা নিতে পারে।

একনজরে প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনা

এবার একনজরে নিচের টেবিলের মধ্যে থেকে দেখে নেওয়া যাক প্রধানমন্ত্রীর জীবন জ্যোতি বীমা যোজনা সম্পর্কে।

প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনা (PM Jeevan Jyoti Bima)
পরিচালনাভারত সরকার দ্বারা পরিচালিত বীমা প্রকল্প
শুভ সূচনা২০১৫ সাল
সুবিধাভোগীদেশের সমস্ত নাগরিক
বয়সের সময়সীমাসর্বনিম্ন » ১৮ বছরসর্বোচ্চ » ৫০ বছর
পলিসির মেয়াদ১ বছর ( প্রতিবছর নবীকরণ করতে পারবেন)
বার্ষিক প্রিমিয়াম এর পরিমাণ৪৩৬ টাকা 
বীমা কভারেজ ২ লক্ষ টাকা 
PMJJBY

কারা এই বীমার জন্য আবেদন করতে পারবে

এবার দেখে নেওয়া যাক কেন্দ্র সরকারের প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনায় নাম অন্তর্ভুক্ত করানোর জন্য কি কি যোগ্যতার প্রয়োজন।

  • আপনাকে অবশ্যই ভারতের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
  • আপনার অবশ্যই বয়স ১৮ থেকে ৫৫ বছরের মধ্যে হতে হবে।
  • আবেদনকারীরা অবশ্যই পোস্ট অফিস কিংবা ব্যাংকে সেভিংস একাউন্ট থাকতে হবে। একাধিক ব্যাংকে সেভিংস একাউন্ট থাকলেও গ্রাহকরা শুধুমাত্র একটি অ্যাকাউন্ট দিয়ে এই প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করাতে পারবে।
  • যৌথ একাউন্টধারীরাও এই প্রকল্পের সুবিধা নিতে পারবেন।
  • এই স্কিমে আবেদন করার জন্য আপনার অবশ্যই ব্যাংকের সাথে আধার লিঙ্ক থাকা প্রয়োজন।

অবশ্যই পড়ুন » LIC Kanydan Policy: ১২০ টাকা বিনিয়োগ করে পাবেন ২ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা, LIC এর দুর্দান্ত পলিসি

প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমার বৈশিষ্ট্য সমূহ

এবার দেখে নেওয়া যাক প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমার যোজনার একাধিক বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে।

  • বীমার সময়কাল: প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনার মেয়াদ শুরু হয় প্রতি বছর ১লা জুন থেকে পরবর্তী বছরের ৩১শে মে পর্যন্ত। প্রত্যেক বছর ১লা জুন বা তার আগে গ্রাহকের একাউন্ট থেকে নির্দিষ্ট পরিমান টাকা স্বয়ংক্রিয়ভাবে কেটে নেওয়া হয়।
  • কভারেজ: প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনার অন্তর্ভুক্ত ব্যক্তি যদি মারা যান তাহলে যে ব্যক্তি নমিনি রয়েছে সেই ব্যক্তি ২ লক্ষ টাকা বীমা কভারেজ পেয়ে যাবে। এক্ষেত্রে কোন রকম স্বাস্থ্য রিপোর্ট বা সার্টিফিকেট জমা করতে বা ঝামেলা পোহাতে হবে না। এক্ষেত্রে অবশ্যই মনে রাখবেন প্রথমবার এই বীমায় নাম নথিভুক্ত করার ৩০ দিনের মধ্য কোন দুর্ঘটনায় মৃত্যুর ফলে বীমার সুবিধা পাবেন না। এই সময়কে “লায়ান পিরিয়ড” বলা হয়, এই সময় মত কোন দাবি গ্রহণযোগ্য হবে না।
  • মেয়াদ: সাধারণত ১৮ থেকে ৫০ বছর বয়স অবধি এই বীমা কভারেজ পাওয়া যায়। কিন্তু অটো ডেবিট প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ৫৫ বছর পর্যন্ত এই বীমার সুবিধা নিতে পারবেন।
  • প্রিমিয়ামের পরিমাণ: এই বীমার লাভের জন্য প্রতিবছর আপনাকে মাত্র ৪৩৬ টাকা করে জমা করতে হবে। এটি একটি টার্ম ইন্সুরেন্স প্ল্যান তাই এই জমা করা টাকা আপনি ফেরত পাবেন না।

অবশ্যই পড়ুন » PMSBY 2023: কেন্দ্রের এই প্রকল্পে প্রত্যেক বছর মাত্র ২০ টাকা বিনিয়োগে পাবেন ২ লক্ষ টাকার বীমা

প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমার সুবিধাসমূহ

প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনার মাধ্যমে লাইস ইন্সুরেন্স কভারেজের সঙ্গে সঙ্গে অন্যান্য সুবিধাও পেয়ে যাবেন। তাই এবার দেখে নিন প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমার মাধ্যমে কি কি সুবিধা পাবেন।

  • ২ লক্ষ টাকার জীবন বীমা কভারেজ পাবেন।
  • প্রদত্ত প্রিমিয়াম এর উপর আয়কর ধারার 80C অনুযায়ী কর ছাড় পাবেন।
  • প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা একাউন্টের অধীনেও আপনি এই যোজনার সুবিধা নিতে পারবেন।

আবেদন পদ্ধতি ও আবেদন ফর্ম

আপনি যদি প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনায় আপনার নাম নথিভুক্ত করতে চান তাহলে আপনি ব্যাংকে গিয়ে সরাসরি এই বীমার জন্য আবেদন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে কিভাবে আবেদন করবেন সম্পূর্ণ গাইড ব্যাংক কর্তৃপক্ষ থেকে পেয়ে যাবেন। প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনার ফর্ম ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন » [Download Application From]

ইন্সুরেন্স ক্লেম করার পদ্ধতি

প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনায় অন্তর্ভুক্ত ব্যক্তি যদি কোন দুর্ঘটনার ফলে মারা যান তাহলে কিভাবে ইন্সুরেন্স ক্লেম করবেন দেখে নিন।

প্রথমে যিনি নমিনি রয়েছেন তাকে পলিসিধারী যে ব্যাংক বা পোস্ট অফিসে প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বিমা যোজনায় নাম নথিভুক্ত করেছিল সেখানে যেতে হবে এবং সঙ্গে অবশ্যই পলিসিধারী ব্যক্তির মৃত্যু সার্টিফিকেট, একাউন্টের ফটোকপি এবং ইন্সুরেন্স ক্লেম করার ফর্ম সঙ্গে নিয়ে যেতে হবে। প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনার ইন্সুরেন্স ক্লেম করার ফর্ম ডাউনলোড করুন » [ Download Insurance Claim From ]

জেনে রাখুন » Health Insurance: স্বাস্থ্য বীমায় বাড়তি সুবিধা! এবার থেকে যেকোনো হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসা পাবেন।

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের টেলিগ্রাম এবং হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us