শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

Loan Against Share: শুধুমাত্র শেয়ার বিক্রি করেই নয়, আপনি শেয়ার বন্ধক রাখলেও টাকা পাবেন

Photo of author

By Joydeep

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

Loan Against Share: কোন কারনে তৎক্ষণাৎ টাকার প্রয়োজন হলে আমরা বেশিরভাগ ব্যাংকে গিয়ে লোনের জন্য আবেদন করে থাকি। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার জন্য আপনাকে ব্যাংকের কাছে কোন মূল্যবান জিনিস বন্ধক রাখতে হয়। তবে আপনি যদি একজন শেয়ার বাজারে বিনিয়োগকারী হন তাহলে আপনার ডিম্যাট অ্যাকাউন্টে (Demat Account) থাকা শেয়ারের বিপরীতও ঋণ নিতে পারবেন। আপনি আপনার শেয়ার (Stock) বিক্রি না করে বন্ধ রেখেও ব্যাংক থেকে ৫০,০০০ টাকা থেকে ২০,০০,০০০ টাকা পর্যন্ত ঋণ পেতে পারেন। আপনি যদি শেয়ার বন্ধক রেখে টাকা নিতে চান তাহলে এই বিষয়ে বিস্তারিত জেনেনিন আজকের এই প্রতিবেদনে।

Loan Against Share 

শেয়ার বিক্রি করে টাকা পাওয়া যায় এটি সবাই জানে। কিন্তূ এখনো পর্যন্ত অনেকেই এটি জানেনা যে, শেয়ার বন্ধক রেখেও টাকা পাওয়া যায়। আপনি যেমন ব্যাংকে কোন মূল্যবান জিনিস বন্ধ রেখে ঋণ পেতে পারেন, তেমনি স্টক, মিউচুয়াল ফান্ড এবং বন্ড এর মতো সিকিউরিটিজ বন্ধক রেখেও ঋণ পেতে পারেন। শেয়ারের বিপরীতে ঋণ নেওয়া কে “Loan Against Share” বলে। স্টক এবং ডেরিভেটিভগুলিতে বিনিয়োগ করার জন্য সাধারণত উচ্চ মূল্যের ব্যক্তিরা (HNI) শেয়ারের বিপরীতে ঋণ নেয়। একজন খুচরো বিনিয়োগকারিরও যদি ডিম্যাট অ্যাকাউন্টে শেয়ার কেনা থাকে তাহলে তিনিও ঋণ নিতে পারবেন। Loan Against Share এর বাজার আনুমানিক ৫০,০০০ থেকে ৫৫,০০০ কোটি টাকার মধ্যে।

কতো টাকা পর্যন্ত শেয়ারের বিপরীতে ঋণ পাওয়া যায়?

আপনার ডিম্যাট অ্যাকাউন্টে থাকা শেয়ারের বাজার মূল্যের ৫০ শতাংশ থেকে ৭০ শতাংশ পর্যন্ত ঋণ নিতে পারবেন। প্রত্যেকটি আর্থিক সংস্থা একই পরিমান শেয়ার এর বিপরীতে ঋণ (Loan Against Share) প্রদান করে না। যেমন দেশের বৃহত্তম ব্যাংক State Bank of India (SBI) ৫০ হাজার টাকা থেকে ২০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত শেয়ারের বিপরীতে ঋণ দিয়ে থাকে। কিন্তূ এখানে IPO-তে বিনিয়োগের উদ্দেশ্য ঋণ নিলে সর্বাধিক ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ঋণ পাবেন। আবার কিছু NBFC সর্বাধিক ১ কোটি টাকা পর্যন্ত শেয়ারের বিপরীতে ঋণ প্রদান করে। তবে RBI-এর নির্দেশ অনুযায়ী, NBFC গুলি শুধুমাত্র NSE-এর গ্রুপ ১ শেয়ারের বিপরীতেই ঋণ দিতে পারে। 

আরও পড়ুন: এই ২ই সেক্টরে দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগে পাবেন বিপুল রিটার্ন! জানালেন গণেশরাম জয়রমন।

কারা কারা শেয়ারের বিপরীতে ঋণ (Loan Against Share)  পাবেন? 

যে সমস্ত ব্যক্তিরা শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করে তারা সবাই শেয়ারের বিপরীতে (Loan Against Share) ঋণ নিতে পারবেন। তবে এর জন্য তাদের ডিম্যাট অ্যাকাউন্টে শেয়ার থাকা প্রয়োজন। অর্থাৎ আপনার ডিম্যাট অ্যাকাউন্টে যদি শেয়ার কেনা থাকে তাহলে, ওই শেয়ারের বাজার মূল্যের ৫০ থেকে ৭০ শতাংশ পর্যন্ত ঋণ নিতে পারবেন। তবে NRI-রা এই সুবিধা পাবেন না। শেয়ারের বিপরীতে ঋণে ৯ শতাংশ থেকে ১৩ শতাংশ পর্যন্ত সুদ দিতে হয়, প্রত্যেক আর্থিক সংস্থা এই সুদের হার আলাদা আলাদা হতে পারে। তাছাড়া এই লোন পরিশোধ করার মেয়াদ সাধারণত ৩০ মাসের হয়।

আরও পড়ুন: Instant Loan Tips -আপনি কি তৎক্ষণাৎ লোন নিতে চান? তাহলে এই টিপস জেনেথাকা আবশ্যক।

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us