শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

kisan vikas patra: কিষান বিকাশ পত্র! ১১৫ মাসে টাকা ডবল হবে।

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

বর্তমানে পোস্ট অফিসে অর্থ সঞ্চয়ের জন্য বিভিন্ন স্কিম‌ রয়েছে। এরই মধ্যে পোস্ট অফিসের জনপ্রিয় এই স্কিমটি হল কিষান বিকাশ পত্র (kisan vikas patra)। কেন্দ্র সরকার মূলত কৃষকদের কথা মাথায় রেখে পোস্ট অফিসের তরফ থেকে কিষান বিকাশ পত্রের সূচনা করেন। ১৯৯৮ সালে কেন্দ্র সরকার কিষান বিকাশ পত্রের কিন্তু এরপর ২০১১ সালে এই স্কিমটি বন্ধ হয়ে যায় এরপর ২০১৪ সালে পুনরায় এই স্কিমটি কেন্দ্র সরকার চালু করেন। কেন্দ্র সরকারের এই স্কিমটি টাকা ডবল করার জন্য সেরা স্কিম। আজকের এই প্রতিবেদনে কেন্দ্র সরকারের কিষাণ বিকাশ পত্র স্কিমটি সম্বন্ধে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে এবং কিভাবে আবেদন করবেন এ সম্পর্কেও আলোচনা করা হয়েছে।

কিষান বিকাশ পত্র (kisan vikas patra)

পোস্ট অফিসের একটি জনপ্রিয় স্কিম হল কিষান বিকাশ পত্র। টাকা ডবল করার স্কিম নামে পরিচিত। এই স্কিমে আপনি আপনার জমানো টাকা মাত্র ১১৫ মাস রেখে ডবল করতে পারবেন। এই স্কিমটিতে আপনি সর্বনিম্ন ১,০০০ টাকা থেকে বিনিয়োগ করতে পারেন। এবং এই স্কিমে আপনি সর্বোচ্চ যত খুশি টাকা বিনিয়োগ করতে পারেন।

সুদের পরিমাণ

পোস্ট অফিসের জনপ্রিয় স্কিম কিষান বিকাশ পত্রের ২০২৪ সালে সুদের পরিমাণ হলো ৭.৫ শতাংশ। অর্থাৎ আপনি যা টাকা রাখবেন সেই টাকার উপর ৭.৫% হারে সুদ পাবেন।

কারা আবেদন করতে পারবে

পোস্ট অফিসের এই স্কিমে যে কোন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তি আবেদন করতে পারবে। আবেদনকারীকে অবশ্যই ভারতীয় হতে হবে। এ ছাড়া কোন নাবালকের নামে তার অভিভাবক এই স্কিম বিনিয়োগ করতে পারবে। পোস্ট অফিস আপনি সিঙ্গেল অ্যাকাউন্ট এবং জয়েন্ট একাউন্ট খুলতে পারবেন।

কিভাবে আবেদন করবেন

কেন্দ্র সরকারের এই স্কিমে আবেদন করার জন্য আপনাকে পোস্ট অফিস থেকে এই স্কিমের ফর্ম সংগ্রহ করতে হবে এবং সেই ফর্ম সঠিকভাবে ফিলাপ করে পোস্ট অফিসে জমা করতে হবে। আপনাদের সুবিধার্থে এই স্কিনে আবেদন করার ফরম দেওয়া হয়েছে। কিষান বিকাশ পত্র আবেদনের ফর্ম » KVP Application Form

অবশ্যই পড়ুন » Post Office Scheme: পোস্ট অফিসের টাকা ডবল করা সেরা ৫টি স্কিম! বিনিয়োগ করলে ভবিষ্যত হবে সুনিশ্চিত

আবেদন করার জন্য কি কি ডকুমেন্ট লাগবে

এবার দেখে নেওয়া যাক পোস্ট অফিসের এই স্কিমে আবেদন করার জন্য কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন – (১) কিষান বিকাশ পত্রের আবেদন ফর্ম, (২) আধার কার্ড, (৩) প্যান কার্ড, (৪) জন্ম সার্টিফিকেট এবং (৫) বাসস্থানের প্রমাণপত্র। এছাড়াও এই স্কিমে একাউন্ট খোলার জন্য মোবাইল নাম্বার এবং ইমেইল আইডি প্রয়োজন।

টাকা ডবল হতে কত সময় লাগবে

পোস্ট অফিসের এই স্কিমে আপনি সর্বনিম্ন ১০০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ যত খুশি টাকা বিনিয়োগ করতে পারবেন সেক্ষেত্রে অবশ্যই মনে রাখবেন ১,০০০ টাকার পর থেকে আপনি ১০০ টাকার গুণিতাকে টাকা বিনিয়োগ করতে পারবেন। বর্তমানে পোস্ট অফিস সুদের পরিমাণ হলো ৭.৫%। এর আগে এই স্কিমে টাকা ডবল হতে সময় লাগতো ১২৪ মাস। কিন্তু বর্তমানে কিষান বিকাশ পত্রে টাকা ডবল হাতে সময় লাগবে ১১৫ মাস অর্থাৎ ৯ বছর ৭ মাস।

অবশ্যই পড়ুন » মহিলা সম্মান সেভিংস সার্টিফিকেট! পোস্ট অফিসের নতুন স্কিমে মহিলারা পাবেন 2 লক্ষ টাকা।

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us

Leave a Comment