শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

Aadhaar Franchise: আধার কার্ডের ফ্র্যাঞ্চাইজি কিভাবে নেবেন? প্রতি মাসে আয় ৩০,০০০ টাকা।

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

অনেক মানুষই চান স্বাধীন ভাবে নিজস্ব কোন একটা ব্যবসা শুরু করতে। অনেকে আবার মনে করেন সরকারি কোনো ব্যবসা শুরু করা যায় তবে তার থেকে লাভবান হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। আজ আপনাদের এমন একটি সরকারি বিষয়কেন্দ্রিক ব্যবসার কথা জানাবো যার মাধ্যমে অনেক বেশি পরিমাণে অর্থ উপার্জন করা সম্ভব। বর্তমান যুগের অর্থ উপার্জনের একটি সেরা মাধ্যম হিসেবে অন্যতম হলো আধার ফ্রাঞ্চাইজির ব্যবসা। সমস্ত ভারতীয় নাগরিকদের সচিত্র পরিচয় পত্র হিসেবে বর্তমানে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ হলো আধার কার্ড। ভারতে বসবাস করে শিশু থেকে বয়স্ক যে কোন মানুষদের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে আধার কার্ড বাধ্যতামূলক বলে ঘোষণা করা হয়েছে। আপনি যদি এই আধার কার্ড বিষয়ক কাজ গুলি করার জন্য একটি আধার ফ্রাঞ্চাইজির ব্যবসা শুরু করতে পারেন তবে অল্প সময়ের মধ্যে অনেক টাকা উপার্জন করতে পারবেন। এই ব্যবসার জন্য কি কি প্রয়োজন হবে এবং এর মাধ্যমে কি কি কাজ করতে পারবেন জেনে নিন এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে।

ব্যবসার প্রথম পদক্ষেপ

আধার ফ্রাঞ্চাইজির ব্যবসা শুরু করতে হলে প্রথমেই প্রয়োজন হবে লাইসেন্স এর। এই লাইসেন্স পাওয়ার জন্য আবেদনকারীদের একটি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হয়, যে পরীক্ষার আয়োজন করে UIDAI। যে সমস্ত আবেদনকারী এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবে তাদের আধার লিস্টিং ও বায়োমেট্রিক যাচাইকরণ করতে হবে এবং লাইসেন্স নেওয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।

অবশ্যই পড়ুন » Business Idea: মাত্র ১০ হাজার টাকা দিয়ে শুরু করুন এই ৩টি ব্যাবসা,কেন্দ্রীয় সরকার করবে সাহায্য

লাইসেন্স নেওয়ার পদ্ধতি

লাইসেন্স নেওয়ার জন্য আবেদন করতে হয় অনলাইনের মাধ্যমে। কি কি পদ্ধতি মেনে এই কাজটি সম্পন্ন করতে হয় দেখে নিন।

  • প্রথমেই NSEIT ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে XML ফাইল ওপেন করতে হবে এবং সেখানে নির্দিষ্ট অপশনে শেয়ার কোড লিখতে হবে।
  • এরপর আধারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে ই আধার ডাউনলোড করতে হবে। এক্ষেত্রে XML ফাইল এবং শেয়ার কোড এই দুটিই ডাউনলোড হয়ে যাবে।
  • এরপর স্ক্রিনে দেখানো একটি নির্দিষ্ট ফর্মে নিজের ব্যক্তিগত তথ্যগুলি দিয়ে পূরণ করে জমা দিতে হবে।
  • এরপর আবেদনীর বৈধ মোবাইল নম্বরে ও ইমেল আইডিতে একটি আইডি এবং পাসওয়ার্ড আসবে।
  • এর মাধ্যমে আধার টেস্টিং এবং সার্টিফিকেশনের পোর্টালে লগইন করে সেখানে থাকা নির্দিষ্ট ফর্মে সমস্ত তথ্য দিয়ে পূরণ করতে হবে এবং তথ্যগুলি যাচাই করে সাবমিট করতে হবে।
  • এরপর লাইসেন্সের জন্য পরিমাণ মতো অর্থ প্রদান করতে হবে।
  • পেমেন্টের পর চালান ও রসিদ ডাউনলোড করে নিতে হবে এবং সেটি প্রিন্ট করে ভবিষ্যৎ প্রয়োজনের জন্য রেখে দিতে হবে।

আধার কার্ড ফ্রাঞ্চাইজির কাজ

  • নতুন আধার কার্ড তৈরি করা।
  • বৈধ কোনো আধার কার্ডের মধ্যে থাকা ভুল নাম, বাড়ির ঠিকানা, ফোন নম্বর, জন্মতারিখের ভুল সংশোধন করা।
  • আধার কার্ডে থাকা ছবি ডিলিট করা বা পরিবর্তন করা।
  • আধার কার্ডে থাকা মোবাইল নম্বর বাতিল করে নতুন মোবাইল নম্বর সংযুক্ত করা।
  • আধার কার্ডে থাকা ইমেল আইডি পরিবর্তন করা বা আপডেট করা।

অবশ্যই পড়ুন » Business Idea: বাজারে এর ডিমান্ড দিন দিন বাড়ছে! আর্টিফিসিয়াল গহনার ব্যাবসা শুরু করে মোটা টাকা আয় করুন

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us