শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

Gold Investment: আগামী ২০৩০ সালে সোনার দাম হবে আকাশছোঁয়া! বিশেষজ্ঞরা কি পরামর্শ দিচ্ছেন দেখে নিন।

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

সোনার প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরকালের। তবে সম্প্রতি সোনার চমকে মাথায় হাত পড়েছে মধ্যবিত্ত মানুষের। স্বর্ণ বিনিয়োগকারীরাও পড়েছেন দোলাচলে। কারণ কিছুদিন যাবত ক্রমাগত বেড়েই চলেছে সোনার দাম। ২০২৪ সালের প্রথম ত্রৈমাসিকের হিসাবে সোনার দাম প্রায় ১৩ শতাংশের বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন সোনার দাম বৃদ্ধি এই ১৩ শতাংশেই থেমে থাকবে না। আগামী দিনের সোনার দাম আরো বাড়তে পারে। এবং মূল্য বৃদ্ধির দিক থেকে বিশ্ব বাজারে রেকর্ড তৈরি করতে পারে এই ধাতুটি। সম্প্রতি Vighnaharta Gold-এর চেয়ারম্যান মহেন্দ্র লুনিয়া সোনার ক্রমাগত মূল্য বৃদ্ধির বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে যা বলেছেন, তাতে স্বাভাবিক ভাবেই হাত পড়েছে মধ্যবিত্তের কপালে। তিনি বলেছেন যে ২০৩০ সাল নাগাদ প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম ১.৬৮ লক্ষ টাকায় পৌঁছে যেতে পারে।

সোনার দাম বৃদ্ধির কারণ

সোনার দামে ক্রমাগত বৃদ্ধির পিছনে রয়েছে একাধিক কারণ। অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন একদিকে যেমন ভূ-রাজনৈতিক উত্তেজনা সোনার দাম বৃদ্ধির উল্লেখযোগ্য কারণ। পাশাপাশি বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দার কারনেও ক্রমাগত বাড়ছে এই ধাতুটির দাম। শুধু এগুলিই নয়, কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের ক্রয়, ক্রমাগত মুদ্রাস্ফীতির চাপ বৃদ্ধি, বর্ধিত খুচরো চাহিদা, এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড অর্থাৎ ETFs এর মাধ্যমে সুদের হার বৃদ্ধি করা, গত ২০১৬ সাল থেকে অর্থাৎ প্রায় ৮ বছর ধরে সোনার খনির উৎপাদন স্থবিরতা, ডি ডলারাইজেশন ইত্যাদি সমস্ত রকম বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি গুলির প্রভাব পড়ছে সোনার দামে।

গুরুত্বপূর্ণ আপডেট » Gold Purity Test: এই 3 উপায়ে সোনার বিশুদ্ধতা পরীক্ষা করুন, সোনা কেনার আগে অবশ্যই দেখুন।

স্বর্ণে বিনিয়োগ

সোনা সাধারণত মুদ্রাস্ফীতির বিরুদ্ধে একটি নির্ভরযোগ্য হেজ হিসাবে কাজ করে থাকে। এছাড়াও এই ধাতুটি বিনিয়োগ পোর্টফোলিও গুলির একটি গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার। এই কারণেই বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা এই পোর্টফোলিও গুলিকে গুরুত্ব সহকারে বিচার করলে এবং সোনায় বিনিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করলে ভবিষ্যতের অত্যন্ত লাভবান হতে পারবেন।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন বিনিয়োগকারী ব্যক্তিদের অন্তত ১০% সোনায় বিনিয়োগ করা উচিত। স্বর্ণ বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সার্বভৌম সোনার বন্ড বা SGBs গুলি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই কাজ করলে বিনিয়োগকারীদের জন্য পোর্টফোলিও গুলি আরো সহজ হয়ে উঠবে। তাই সোনার দামের ক্রমাগত বৃদ্ধিকে মাথায় রেখে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন আগামী চার-পাঁচ বছরের মধ্যে সোনা কেনা অর্থাৎ সোনায় বিনিয়োগ করা অত্যন্ত লাভজনক পদক্ষেপ। কারণ ২০৩০ সালের মধ্যে সোনার দাম অনেকটাই বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে।

অবশ্যই পড়ুন » Gold Rate in India: সোনায় বিনিয়োগ করতে চান! দেখে নিন বিগত ৫০ বছরের বেশি সময় ধরে সোনার দাম

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us