শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

ফিক্সড ডিপোজিটে মেয়াদের আগেই টাকা তুলে নিলে কি হবে? উদাহরণ সহ সমস্ত হিসেবে দেখুন।

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

প্রতিটি মানুষের চান নিজের ভবিষ্যতকে আর্থিক ভাবে সমৃদ্ধ রাখতে। নিজের আর্থিক সুরক্ষা বজায় রাখার জন্য এই কারণেই মানুষ নিজের উপার্জিত অর্থের কিছুটা অংশ নির্দিষ্ট কোন একটি স্থানে বিনিয়োগ করে রাখেন। ব্যাংক এবং পোস্ট অফিসের মাধ্যমে বিভিন্ন স্কিমে যেমন অর্থ বিনিয়োগ করে রাখা সম্ভব, ঠিক তেমনি বিভিন্ন ধরনের বীমা সংস্থা, মিউচুয়াল ফান্ড ইত্যাদি ক্ষেত্রেও বহু মানুষ অর্থ বিনিয়োগ করে রাখেন। তবে বিনিয়োগকারী ব্যক্তিদের মধ্যে একটি জনপ্রিয় স্কিম হল ফিক্সড ডিপোজিট। ফিক্সড ডিপোজিট স্কিম কি এবং এই স্কিমের মেয়াদ পূর্তির আগে টাকা তুলে নিলে ঠিক কি ক্ষতি হয় সে সম্পর্কেই বিস্তারিত তথ্য আপনাদের জানাবো এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে।

ফিক্সড ডিপোজিট স্কিম

ব্যাংক এবং পোস্ট অফিসের মাধ্যমে পরিচালিত ফিক্সড ডিপোজিট হল এমন একটি স্কিম যার মাধ্যমে গ্রাহক নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ নির্দিষ্ট সময়ের জন্য ফিক্সড করে রাখেন। অর্থাৎ নির্দিষ্ট সময়ের জন্য গ্রাহকের টাকাটি লক ইন পিরিয়ডের মধ্যে থাকে। এই সময়ের মধ্যে সরকার থেকে প্রদান করা নির্দিষ্ট পরিমাণ সুদের টাকা সংযুক্ত হয় গ্রাহকের জমাকৃত সেই টাকার সঙ্গে। পরবর্তীতে মেয়াদ উত্তীর্ণ হলে গ্রাহক সুদ সহ মোটা টাকা রিটার্ন হিসেবে পেতে পারেন। এই স্কিমের মেয়াদ পূর্তির সময় কাল হলো পাঁচ বছর।

ফিক্সড ডিপোজিট স্কিমে মেয়াদ পূর্তির আগে কি টাকা তোলা সম্ভব?

সাধারণত বলা হয় ফিক্সড ডিপোজিট স্কিমের নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অর্থ বিনিয়োগকারীর টাকাটি সম্পূর্ণভাবে ফিক্সড থাকে। তাই এই টাকার মাধ্যমে পুরো লাভের অঙ্কটি পেতে গ্রাহককে মেয়াদপূর্তি পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়। তবে প্রয়োজন হলে মেয়াদ পূর্তির আগেও এই টাকা তুলে নেওয়া সম্ভব। মেয়াদের আগেই টাকা তুলে নেওয়াকে বলা হয় প্রি ম্যাচিউর উইথড্রয়াল। এক্ষেত্রে গ্রাহকের কাছ থেকে কিছু জরিমানার টাকা ধার্য করা হয়।

প্রি-ম্যাচিওর উইথড্রয়াল চার্জ

ফিক্সড ডিপোজিট স্কিমে প্রি-ম্যাচিওর উইথড্রয়াল এর ক্ষেত্রে একদিকে যেমন সুদ কম পাওয়া যায় এবং অন্যদিকে গ্রাহককে জরিমানা দিতে হয়। এই জরিমানার পরিমাণ বিভিন্ন ব্যাংকের জন্য বিভিন্ন হতে পারে। তবে সাধারণত গ্রাহকের কাছ থেকে ০.৫ শতাংশ থেকে ১ শতাংশ পর্যন্ত চার্জ নেওয়া হয় প্রি-ম্যাচিওর উইথড্রয়াল এর কারণে।

আরোও পড়ুন » SBI অমৃত কলস ফিক্সড ডিপোজিট স্কিম! কোন সময় বেশি লাভ, কত টাকা রাখলে কত রিটার্ন পাবেন দেখুন।

৫ বছর মেয়াদি ফিক্সড ডিপোজিট ১ বছরে ভাঙলে ক্ষতির পরিমাণ

কোনো গ্রাহক যদি ব্যাংকে ৫ বছরের জন্য ১ লক্ষ টাকা ফিক্সড ডিপোজিট করেন সেক্ষেত্রে তিনি ব্যাংক থেকে ৭ শতাংশ হারে সুদ পাবেন। কিন্তু সেই গ্রাহক যদি তার বিনিয়োগ করার সময় থেকে এক বছর পর ফিক্সড ডিপোজিটটি ভাঙেন তবে তাকে আর ৭ শতাংশ করে সুদ দেওয়া হবে না। সেক্ষেত্রে কার্ড রেট অনুসারে গ্রাহক ৬ শতাংশ করে সুদ পাবেন। শুধু তাই নয় এই ৬ শতাংশ সুদের উপর ১ শতাংশ আবার জরিমানা হিসেবে গ্রাহককে দিতে হবে। সে ক্ষেত্রে গ্রাহক পাবেন সর্বমোট ৫% সুদ। এক বছরের মধ্যে ফিক্সড ডিপোজিট না ভেঙে তিনি যদি ৭ শতাংশ সুদ লাভ করতেন সেক্ষেত্রে ৭০০০ টাকা সুদ মিলতো। কিন্তু প্রি-ম্যাচিওর উইথড্ররল ফলে সুদের পরিমাণ কমে ৫ শতাংশ হয়ে যাওয়ায় তিনি মাত্র ৫০০০ টাকা সুদ পাবেন। অর্থাৎ ১ লক্ষ টাকা বিনিয়োগের ক্ষেত্রে গ্রাহকের ক্ষতি হবে ২ হাজার টাকা।

অবশ্যই পড়ুন » বেশি রিটার্ন পেতে চান! ফিক্সড ডিপোজিট নয় বিনিয়োগ করুন ডেট ফান্ডে, দেখে নিন সুবিধাগুলি

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us