শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

Fixed Deposit Laddering: ফিক্সড ডিপোজিটে বেশি রিটার্ন পেতে চান? মেনে চলুন বিনিয়োগের এই স্ট্রেটেজি।

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

Fixed Deposit Laddering Investment Strategy: প্রতিটি মানুষই চান নিজের ভবিষ্যত সুরক্ষার জন্য অর্থ বিনিয়োগ করে রাখতে। বর্তমানে অর্থ বিনিয়োগ করার জন্য ব্যাংক এবং পোস্ট অফিসের বিভিন্ন স্কিম গুলির পাশাপাশি আছে বিভিন্ন বীমা সংস্থা, মিউচুয়াল ফান্ড, SIP ইত্যাদি। তবে অনেকেই বিনিয়োগের ঝুঁকি সম্পূর্ন ভাবে এড়িয়ে যেতে অন্যান্য প্রতিষ্ঠান গুলির বদলে ব্যাংক এবং পোস্ট অফিসের বিনিয়োগ অপশন গুলিকে বেছে নিতে চান। সেক্ষেত্রে গ্রাহকদের কাছে একটি অতি জনপ্রিয় স্কিম হলো ফিক্সড ডিপোজিট বা FD। এই স্কিম কি এবং কিভাবে এর মাধ্যমে বেশি রিটার্ন পাবেন দেখে নিন।

FD স্কিম কি?

FD বা ফিক্সড ডিপোজিট স্কিমটি আসলে একটি স্থায়ী আমানত প্রকল্প। এই স্কিমে গ্রাহককে এককালীন মোটা টাকা বিনিয়োগ করতে হয়। সম্পূর্ন ঝুঁকিহীন এই বিনিয়োগে গ্রাহকের বিনিয়োগ করা টাকার সঙ্গে সংযুক্ত হয় নির্দিষ্ট হারে সুদের টাকা। এর ফলে মেয়াদ শেষে সুদ সহ গ্রাহক অনেকটা বেশি টাকা রিটার্ন পান।

FD স্কিম থেকে বেশি রিটার্ন পাওয়ার কৌশল

ব্যাংক বা পোস্ট অফিসের দ্বারা পরিচালিত FD স্কিম অত্যন্ত নিরাপদ। এতে কোনো রকম ঝুঁকির সম্ভাবনা থাকে না। তবে গ্রাহকরা অভিযোগ করেন অন্যান্য বিনিয়োগ বিকল্পের তুলনায় ফিক্সড ডিপোজিট স্কিমে কম রিটার্ন পাওয়া যায়। তবে একটি বিশেষ কৌশল অবলম্বন করলে ফিক্সড ডিপোজিট থেকে অনেক বেশি রিটার্ন পাওয়া সম্ভব হয়। ফিক্সড ডিপোজিট স্কিমের মধ্যে জনপ্রিয় একটি কৌশল হল ল্যাডারিং বিনিয়োগ কৌশল বা Laddering Investment Strategy। এই পদ্ধতির সাহায্যে অনেক বেশি পরিমাণ সুদের টাকা লাভ করেন গ্রাহক।

জেনে রাখুন » SBI FD: স্টেট ব্যাংকের ফিক্সড ডিপোজিটে 1 লক্ষ টাকা জমা করলে কত টাকা রিটার্ন পাবেন দেখুন।

Laddering Investment Strategy কি?

নিজের বিনিয়োগ করা মূল টাকা সমস্তটা একটি FD স্কিমে বিনিয়োগ না করে ছোট ছোট ভাগে ভাগ করে ভিন্ন মেয়াদের একাধিক FD করাকে বলা হয় ল্যাডারিং কৌশল। সেক্ষেত্রে ভিন্ন ভিন্ন সময়ে FD স্কিমের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়। ম্যাচিউরিটির পরে পুনরায় বিনিয়োগ করার সুবিধা দেওয়া হয়। এই পদ্ধতির মাধ্যমে বিনিযোগকারীরা সুদের হার ওঠা নামার সময় সরাসরি সুদ বৃদ্ধির সুবিধা পান। ল্যাডারিং প্রক্রিয়ায় গ্রাহক তার সম্পূর্ন বিনিয়োগ করা টাকা ১,২,৩ এবং ৫ বছরের FD তে বিনিয়োগ করে নিতে পারেন। ১ বছর পর একটি এফডি ম্যাচিওর হলে গ্রাহক পুনরায় এটি অন্য মেয়াদের FD হিসাবে বিনিয়োগ করতে পারেন। এই পুনরায় FD করার সময় গ্রাহক আবার চলতি বর্ধিত হারেও সুদের সুবিধা পেতে পারেন। তাই এককালীন একটি স্থায়ী আমানতের বদলে এই পদ্ধতিতে বিনিয়োগ করায় গ্রাহক অধিক লাভ করতে পারেন।

অবশ্যই পড়ুন » Fixed Deposit: মেয়াদের আগেই ফিক্সড ডিপোজিট থেকে টাকা তুলে নিলে কত টাকা পাবেন জানুন

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us