শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

Pension Scheme: অবসর পরবর্তী জীবনের জন্য রয়েছে কেন্দ্র সরকারের একাধিক স্কিম! কোন স্কিমে কি সুবিধা পাবেন, দেখুন।

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

Central government Pension Schemes Benifits: সরকারি কর্মীদের অবসর পরবর্তী জীবনের আর্থিক সহায়তা প্রদান করার জন্য সরকারের তরফ থেকে পেনশনের ব্যবস্থা করা হয়। তবে যাদের ক্ষেত্রে এই পেনশনের সুবিধা থাকে না, সেই সব কর্মীদের অবসর পরবর্তী জীবনের আর্থিক সুরক্ষার কথা ভেবে সরকার বিভিন্ন স্কিম পরিচালনা করে। সরকারের তরফ থেকে পাওয়া পেনশন স্কিম গুলিতে বিনিয়োগ করলে একটি সময় পর নিশ্চিত আয়ের সুবিধা পাওয়া সম্ভব। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে দেশের প্রবীণ নাগরিকদের জন্য একাধিক স্কিম পরিচালনা করা হয়। জেনে নিন এই স্কিমের সুবিধাগুলি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য।

ন্যাশনাল পেনশন সিস্টেম বা NPS

প্রবীণ নাগরিকদের বৃদ্ধ বয়সে পেনশনের সুবিধা দেওয়ার জন্য এই স্কিম অত্যন্ত জনপ্রিয়। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার এই স্কিমটি পরিচালনা করে। এই স্কিমের অধীনে বিনিয়োগকারীকে একটি নির্দিষ্ট সময় ধরে বিনিয়োগ করে যেতে হয়। ৬০-৬৫ বছর বয়সী যে কোন ভারতীয় নাগরিক এই স্কিমে রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়ায় সম্পন্ন করতে পারেন। ৭০ বছর বয়স পর্যন্ত যে কোন ভারতীয় নাগরিক এই স্কিমের সদস্য থাকতে পারেন। ন্যাশনাল পেনশন স্কিম একদিকে যেমন প্রবীণ নাগরিকদের বৃদ্ধ বয়সের একটি আয়ের উৎস হবে, তেমনি দীর্ঘ মেয়াদের ভিত্তিতে বাজারভিত্তিক আয় এবং সুরক্ষা কভারেজ দেয়।

ইন্দিরা গান্ধী জাতীয় বৃদ্ধাবস্থা পেনশন স্কিম

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে দেশের প্রবীণ নাগরিকদের বৃদ্ধ বয়সে মাসিক পেনশনের সুবিধা দিতে, এই স্কিম পরিচালনা করা হয়। দেশের বিপিএল বিভাগের অন্তর্ভুক্ত ৬০-৭৯ বয়সী মানুষরা এই স্কিমের অধীনে ৩০০ টাকা করে মাসিক ভাতা পান। ৮০ বছর উর্ধ্বের ব্যক্তিদের জন্য ভাতার পরিমান হয় ৫০০ টাকা। নিজে কোন রকম বিনিয়োগ করা ছাড়াই এই স্কি অধীনে বৃদ্ধ বয়সে পেনশন লাভ করা সম্ভব।

অটল পেনশন যোজনা

দেশের দারিদ্র সীমার নিচে অবস্থিত সাধারণ মানুষ, সুবিধাবঞ্চিত ব্যক্তি, অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের ভবিষ্যতের আর্থিক অবস্থার কথা চিন্তা করে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে এই স্কিম পরিচালনা করা হয়। এই স্কিমে বিনিয়োগকারীরা মাসিক ১০০০ থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত পেনশনের সুবিধা পেয়ে থাকেন। ১৮ বছর থেকে ৪০ বছর বয়সে যে কোন ভারতীয় নাগরিক এই স্কিমে অর্থ বিনিয়োগ শুরু করতে পারেন। তবে যে সকল মানুষকে ভারতীয় আয়কর আইন অনুসারে সরকারকে কর দিতে হয় তারা এই স্কিমে বিনিয়োগের যোগ্য হন না।

সরকারি তথ্য অনুসারে জানা যায় এই স্কিমের অধীনে বিনিয়োগকারীরা ৯ শতাংশ নিশ্চিত পেনশনের সুবিধা পান। এই স্কিমে অর্থ বিনিয়োগ করার ১৫ বছর পর বিনিয়োগকারী চাইলে তার সমস্ত টাকা তুলে নিতে পারেন।

আরও পড়ুন: Atal Pension Yojana 2024 – মাসে ৫০০০ টাকা পেনশন! জানুন – অটল পেনশন যোজনা কি? এবং আবেদন পদ্ধতি।

মান্থলি ইনকাম স্কিম (MIS)

ভারতীয় পোস্ট অফিসের দ্বারা পরিচালিত মান্থলি ইনকাম স্কিম বা এমআইএস। মাসিক আয়ের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ স্কিম। সিঙ্গেল অ্যাকাউন্টে বার্ষিক সর্বোচ্চ ৯ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করা যায়। এই স্কিমে জয়েন্ট একাউন্ট এর ক্ষেত্রে গ্রাহক বিনিয়োগ করতে পারেন ১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত। সিঙ্গেল এবং জয়েন্ট উভয় ধরনের অ্যাকাউন্ট এর মাধ্যমে বিনিয়োগ করে প্রতি মাসে মাসে সুদের টাকা লাভ করা সম্ভব হয়। এই স্কিমে টাকা জমা রাখার মেয়াদ ৫ বছর। বর্তমানে এই স্কিমের অধীনে ৭.৪% সুদ দেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন: পোস্ট অফিস এম আই এস কি ? পোস্ট অফিস মাসিক ইনকাম স্কিম কি 2023?|post office mis in Bengali

EPFO স্কিম

এর মাধ্যমে বেতনভোগী কর্মীরা নিজের বেতনের কিছুটা অংশ জমা রাখেন এবং তার নিয়োগ কারী সংস্থা থেকেও সেই সমপরিমাণ টাকা জমা রাখা হয়। EPFO-র অধীনে টানা ১০ বছর বিনিয়োগ করলে পেনশনের সুবিধা পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এক্ষেত্রে পেনশনের পরিমাণটি নির্ভর করে বিনিয়োগ করা টাকার পরিমাণের উপর।

আরও পড়ুন: এবার ৫০০০০ টাকা বোনাস দেবে EPFO! কারা এবং কিভাবে এই সুবিধা পাবে জানুন।

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত হন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম গ্রুপJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us