শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

Business Idea: কম পুঁজির এই ব্যাবসায় নেই প্রতিযোগী, ব্যাবসার শুরু করলেই লাখ লাখ টাকা আয়

Photo of author

By Joydeep

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

Low Investment Business Idea: বর্তমানে যে ব্যাবসায় করতে যান না কেন প্রচুর প্রতিযোগীর সম্মুখীন হতে হয়। যার কারণে ব্যবসায় লাভ করা খুবই কঠিন হয়ে উঠে। কিন্তূ এখনো কিছু এমন ব্যবসা রয়েছে যেগুলিতে কোন বড় প্রতিযোগী নেই বললেই চলে। আজকে আমরা এমনই একটি ব্যবসা সম্পর্কে জানব। যেটি শুরু করে আপনারা মাসে লাখ লাখ টাকা আয় করতে পারবেন। এই সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে অবশ্যই পূরণ নিবন্ধটি পড়ুন।

কম পুঁজির এই ব্যাবসায় নেই প্রতিযোগী 

আজকে আমরা এমন একটি ব্যবসা সম্পর্কে জানব যেটি কম পুঁজিতে শুরু করা যাবে এবং এতে কোনো বড়ো প্রতিযোগী নেই। এর ফলে এই ব্যবসাতে সফল হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা বেশি। আমরা যে ব্যবসা সম্পর্কে বলছি সেটি হল মিনি ইট বা DIY কিট তৈরি করার ব্যবসা। সহজ কথায় বলতে গেলে এটি বাচ্চাদের এক ধরনের খেলনা, যা দিয়ে বাচ্চারা ছোট ছোট জিনিস তৈরি করতে পারবে এবং তাদের বুদ্ধির আরও বিকাশ ঘটে। এই কারণেই ১৫ বছরের কম বয়সের বাচ্চাদের মিনি ইট এর কিট উপহার দিতে বেশি পছন্দ করে সবাই। 

বাজারে মিনি ইট অনেকেই বিক্রি করে, কিন্তূ এই ব্যাবসায় কোনো বড়ো নামকরা কোম্পানি নেই এবং ভারতে কেও এটি তৈরি করে না। যার কারণে আপনি এই ব্যাবসার একটি নামকরা প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি গড়ে তোলার সুযোগ পাবেন। কিন্তূ বড়ো কোম্পানি খোলা মনে অনেক টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। তবে আপনি প্রথমে কম পুঁজিতেই এই ব্যাবসা শুরু করতে পারেন। শুধুমাত্র ১৫,০০০ টাকা দিয়েই এই ব্যাবসাটি প্রাথমিক স্তরে শুরু করা যাবে। 

আরও পড়ুন: Business Idea – কম খরচে এইভাবে শুরু করুন প্যাকিং ব্যবসা, প্রতি মাসে প্রচুর আয় করবেন আপনিও।

ব্যাবসার শুরু করলেই লাখ লাখ টাকা আয় 

ভারতে ফ্লাই অ্যাশ ইট কিনতে গেলে প্রায় ৭ টাকা থেকে ১৫ টাকার মধ্যে মিলবে। কিন্তূ মিনি ইট এর দাম কমপক্ষে ৩০ টাকা। তাছাড়া এই ইট তৈরি করতে খরচও অনেক কম, প্রতি ইটে প্রায় ৩ টাকা। অর্থাৎ আপনি উৎপাদন খরচ থেকে অনেক বেশি লাভ রেখে বিক্রি করতে পারবেন। এর চাহিদা বেশি হওয়ার কারণে আপনি মাসে লাখ লাখ টাকা আয় করতে পারেন।

ভারতে ১৫ বছরের কম বয়সের শিশু রয়েছে প্রায় ৪০ কোটি। এই শিশুরা ২০২৩ সালে ১০,০০০ কোটি টাকার খেলাধুলা ও প্রকল্পের জন্য জিনিসপত্র কিনেছিল, যায় মধ্যে মিনি ইট কেনা হয়েছিল ৪০০ কোটি টাকার। এর থেকে অনুমান করতে পারেন যে, ভারতে এই ব্যাবসার চাহিদা কতটা। বর্তমানে এর চাহিদা বাড়ার কারণে DIY কিট এর দোকান বা শারুম ভারতের প্রতেক শহরেই খোলা হচ্ছে। এরকম অবস্থায় এই ব্যাবসায় নামার জন্য ভালো সময় প্রমাণ হতে পারে। 

আরও পড়ুন: Business Idea – বাড়িতে ফেলে দেওয়া এই দ্রব্য দিয়ে তৈরি করুন ব্যাবসা, প্রতিমাসে আয় ১০,০০০ টাকা।

করা এই ব্যাবসা শুরু করতে পারবেন? 

প্লাস্টার অফ প্যারিস এবং রেড অক্সাইড মিশ্রিত করে একটি মিনি ইট এর ধাঁচে জমিয়ে খুব সহজেই এগুলি তৈরি করা যাবে। মহিলা এবং চাকরি থেকে অবসর প্রাপ্ত ব্যক্তিরাও এই কাজ করতে পারবে। পণ্য তৈরি করার পর এগুলির নিকটবর্তী কোনো শিশুদের খেলনার দোকানে বিক্রি করতে হবে। ভারতের যুবক যুবতীরা এই কাজ আরও ভালোভাবে করতে পারবে, কারণ তারা ই-কমার্স সাইট তৈরি করে সারা ভারতে এগুলি বিক্রি করতে পারবে। 

আরও পড়ুন: Business Idea – বাড়িতে বসেই মাসে ৫০,০০০ টাকা আয়! শুরু করুন এই বিনা পুঁজির ব্যাবসা।

উপসংহার 

অল্প পুঁজিতে মিনি ইট বা DIY কিট এর ব্যাবসা শুরু করে আপনি প্রতিমাসে লাখ লাখ টাকা আয় করতে পারেন। এর চাহিদা প্রচুর এবং এর কোনো নামকরা বড়ো কোম্পানি নেই। ২০২৩ সালে সারা ভারত জুড়ে প্রায় ৪০০ কোটি টাকার মিনি ইট এর কিট বিক্রি হয়েছিল। এর থেকে অনুমান করতে পারেন এর চাহিদা। এই ব্যাবসা সম্পর্কে আরো কিছু তথ্য উপরে উল্লিখিত রয়েছে।

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলFollow Us
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us