শেয়ার বাজার মিউচুয়াল ফান্ড পোস্ট অফিস স্কিম ব্যাঙ্ক স্কিম ক্রেডিট কার্ড ডিমেট অ্যাকাউন্ট ইন্সুরেন্স সমস্ত FD ক্যালকুলেটর

Sip নাকি lumpsum কোনটি অধিক লাভজনক | SIP vs LUMPSUM in Bengali

Photo of author

By Anjan Mahata

গ্রুপে যুক্ত হনচ্যানেলে যুক্ত হন

SIP vs LUMPSUM in Bengali: বর্তমানে সবাই নিজের কাছে থাকা অর্থ বহুগুণ বৃদ্ধি করতে চায়। তাই সকলে মিউচুয়াল ফান্ডে টাকা বিনিয়োগ করতে চাই কারণ মিউচুয়াল ফান্ডে শেয়ার বজারের তুলনায় ঝুঁকির পরিমাণ কম এবং মিউচুয়াল ফান্ড থেকে খুব ভালো রিটার্ন পাওয়া যায়। আপনি কি মিউচুয়াল ফান্ডে অর্থ বিনিয়োগ করতে আগ্রহী এবং আপনি জানেন না SIP investment কি? LUMPSUM investment কি ? SIP investment ভালো হবে না LUMPSUM investment ভালো হবে কোনটিতে বেশি পরিমাণে রিটার্ন পাওয়া যাবে এবং ঝুঁকির পরিমাণ কম। Sip নাকি lumpsum কোনটি অধিক লাভজনক বিস্তারিত জানার জন্য সম্পূর্ণ পোষ্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

LUMPSUM Investment কি?

আপনার কাছে যে পরিমাণ টাকা আছে সেই সমস্ত টাকায় যদি আপনি একবারে বিনিয়োগ করেন তবে সেই বিনিয়োগ পদ্ধতিকে বলা হয় LUMPSUM investment বা One time investment

যদি আপনার কাছে ১ লক্ষ টাকা থেকে থাকে এবং আপনি যদি পুরো ১ লক্ষ টাকায় মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করেন তাহলে আপনার বিনিয়োগ পদ্ধতিকে বলা হয় LUMPSUM investment বা One time investment

SIP Investment কি?

আপনার কাছে যে পরিমাণ টাকা আছে সেই সমস্ত টাকা যদি আপনি একবারে বিনিয়োগ না করে মাসে মাসে বা বছরে অর্থাৎ একটি নির্দিষ্ট সময় অন্তর অন্তর বিনিয়োগ করেন তবে সেই বিনিয়োগ পদ্ধতিকে বলা হয় SIP investment।

SIP এর নামেই লুকিয়ে রয়েছে এর অর্থ। SIP এর পুরো অর্থ হল Systematic Investment Plan। অর্থাৎ একটি নির্দিষ্ট সময়ের ব্যবধানে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করা।

যদি আপনি ১০০০ টাকা বা ৫০০ টাকা ইত্যাদি প্রত্যেক মাসে একটি মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করেন তাহলে আপনার সেই বিনিয়োগ পদ্ধতিটি হল SIP investment ।

  • ১৫ দিনের অন্তরে SIP করতে পারেন।
  • ৩০ দিনের অন্তরে SIP করতে পারেন।
  • ৩ মাসের অন্তরে SIP করতে পারেন।
  • ৪ মাসের অন্তরে SIP করতে পারেন।
  • অর্থাৎ আপনি যেমন টি চান তেমন সময়ের ব্যবধানে SIP করতে পারেন এবং আপনি যেমন টাকার SIP করতে চান তেমনটিও সম্ভব।

আরও পড়ুন>>মিউচুয়াল ফান্ডে কিভাবে বিনিয়োগ করবেন?

SIP এবং LUMPSUM investment কিভাবে কাজ করে

স্টক হোক বা মিউচুয়াল ফান্ড কখনোই এদের দাম সর্বদা বৃদ্ধি পায় না। সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে এদের দাম পরিবর্তন হয়। এবার একটি উদাহরণের মাধ্যমে জানা যাক SIP এবং LUMPSUM বিনিয়োগ কিভাবে কাজ করে-

Mutual fund investment price chart

এখানে আমরা একটি মিউচুয়াল ফান্ডের প্রাইস চার্ট ব্যবহার করেছি। যেখানে জানুয়ারি মাসে মিউচুয়াল ফান্ডের NAV ছিল ১০০ টাকা, কিন্তু এপ্রিল মাসে NAV কমে গিয়ে হয় ৬০ টাকা। এরপর NAV ক্রমশ বৃদ্ধি পেতে থাকে এবং পরের বছর জানুয়ারি মাসে NAV হয়ে দাঁড়ায় ১২০ টাকা।

NAV কী?

NAV কথার পুরো অর্থ হলো Net Asset Value। NAV মানে হল ১ ইউনিট মিউচুয়াল ফান্ডের দাম অর্থাৎ একটি মিউচুয়াল ফান্ড কিনতে কত টাকা লাগবে।

  • নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকায় NAV কম থাকলে বেশি পরিমাণে মিউচুয়াল ফান্ড কিনতে পারবেন।
  • নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকায় NAV বেশি থাকলে কম পরিমাণে মিউচুয়াল ফান্ড কিনতে পারবেন।

LUMPSUM investment কিভাবে কাজ করে

LUMPSUM investment price chart

ধরে নিন আপনি ১২ হাজার টাকা বিনিয়োগ করবেন। জানুয়ারি মাসে যখন NAV ছিল ১০০ টাকা সেই সময় আপনি যদি বিনিয়োগ করতেন তাহলে আপনি (১২০০০/১০০)= ১২০ ইউনিট মিউচুয়াল ফান্ড পেতেন। যদি আপনি জানুয়ারি মাসের বদলে এপ্রিল মাসে (যখন NAV ছিল ৬০ টাকা) ওই টাকা বিনিয়োগ করতেন তাহলে আপনি (১২০০০/৬০)=২০০ ইউনিট মিউচুয়াল ফান্ড পেতেন। অর্থাৎ আপনি যদি জানুয়ারি মাসের বদলে এপ্রিল মাসে ১২০০০ টাকা বিনিয়োগ করতেন তাহলে আপনি ৮০ ইউনিট বেশি মিউচুয়াল ফান্ড কিনতে পারতেন।

বর্তমানে NAV চলছে ১২০ টাকা, বর্তমানে দাঁড়িয়ে যদি লাভের হিসেব করা হয় তাহলে আপনার কত টাকা লাভ হবে দেখে নেওয়া যাক-

  • জানুয়ারি মাসে যদি আপনি ১২ হাজার টাকা বিনিয়োগ করতেন তাহলে আপনার রিটার্নের পরিমাণ হবে জানুয়ারি মাসের ইউনিট এবং বর্তমান NAV এর গুণফল অর্থাৎ (১২০*১২০)= ১৪,৪০০ টাকা। এক্ষেত্রে আপনার লাভের পরিমাণ (১৪,৪০০-১২,০০০)= ২,৪০০ টাকা।
  • এপ্রিল মাসে যদি আপনি ১২ হাজার টাকা বিনিয়োগ করতেন তাহলে আপনার রিটার্নের পরিমাণ হবে এপ্রিল মাসের ইউনিট এবং বর্তমান NAV এর গুণফল অর্থাৎ (২০০*১২০)= ২৪,০০০ টাকা। এক্ষেত্রে আপনার লাভের পরিমাণ (২৪,০০০-১২,০০০)= ১২,০০০ টাকা।

LUMPSUM investment এর বৈশিষ্ট্য

LUMPSUM investment এর বৈশিষ্ট্য অর্থাৎ সুবিধা-অসুবিধা গুলি হল –

  • LUMPSUM investment রিটার্নের পরিমাণ নির্ভর করে ইনভেস্টমেন্ট করার সময়ের উপর।
  • মার্কেটের ভ্যালুয়েশন যখন কম থাকে সেই সময় যদি বিনিয়োগ করেন তাহলে বেশি পরিমাণ রিটার্ন পাবেন।
  • মার্কেটের ভ্যালুয়েশন যখন বেশি থাকে সেই সময় যদি বিনিয়োগ করেন তাহলে কম পরিমাণ।
  • LUMPSUM investment এ ঝুঁকির পরিমাণ SIP investment এর থেকে তুলনামূলক বেশি।
  • যদি আপনি শর্ট টার্মের জন্য ইনভেস্টমেন্ট করেন তাহলে আপনি কম রিটার্ন পাবেন বা নেগেটিভ রিটার্নও পেতে পারেন অর্থাৎ শর্ট টার্মের ইনভেস্টমেন্টের ক্ষেত্রে ঝুঁকির পরিমাণ বেশি।
  • যদি আপনি লং টার্মের জন্য ইনভেস্টমেন্ট করেন তাহলে আপনি বেশি পরিমাণে রিটার্ন পাবেন অর্থাৎ শর্ট টার্মের ইনভেস্টমেন্টের ক্ষেত্রে ঝুঁকির পরিমাণ কম।

আরও পড়ুন>>মিউচুয়াল ফান্ড এবং শেয়ার বাজার কোনটিতে বিনিয়োগে বেশি লাভ

SIP investment কিভাবে কাজ করে

এবার আপনি ১২ হাজার টাকা একেবারে বিনিয়োগ না করে মাসে মাসে ১০০০ টাকা করে বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

SIP investment price chart
  • যদি আপনি জানুয়ারি মাস থেকে প্রত্যেক মাসে মাসে ১০০০ টাকা বিনিয়োগ করা শুরু করেন তাহলে মোট ১৪৮.১৩ ইউনিট মিউচুয়াল ফান্ড পাবেন।
মাসNAV রেটপ্রাপ্ত ইউনিট সংখ্যা
জানুয়ারি১০০(১০০০/১০০)= ১০ ইউনিট
ফেব্রুয়ারি৯০(১০০০/৯০)= ১১.১১ ইউনিট
মার্চ৮০(১০০০/৮০)= ১২.৫ ইউনিট
এপ্রিল৬০(১০০০/৬০)= ১৬.৬৭ ইউনিট
মে৭০(১০০০/৭০)= ১৪.২৮ ইউনিট
জুন৭৫(১০০০/৭৫)= ১৩.৩৩ ইউনিট
জুলাই৭০(১০০০/৭০)= ১৪.২৮ ইউনিট
আগস্ট৮০(১০০০/৮০)= ১২.৫ ইউনিট
সেপ্টেম্বর৭৫(১০০০/৭৫)= ১৩.৩৩ ইউনিট
অক্টোবর৯০(১০০০/৯০)= ১১.১১ ইউনিট
নভেম্বর১০০(১০০০/১০০)= ১০ ইউনিট
ডিসেম্বর১১০(১০০০/১১০)= ৯.০৯ ইউনিট
জানুয়ারি১২০(১০০০/১২০)= ৮.৩৩ ইউনিট
মোট = ১৪৮.১৩ইউনিট

বর্তমানে NAV চলছে ১২০ টাকা, বর্তমানে দাঁড়িয়ে যদি লাভের হিসেব করা হয় তাহলে আপনার কত টাকা লাভ হবে দেখে নেওয়া যাক-

যদি আপনি জানুয়ারি মাস থেকে প্রত্যেক মাসে মাসে ১০০০ টাকা বিনিয়োগ করা শুরু করেন তাহলে আপনার মোট রিটার্নের পরিমাণ মোট ইউনিট এবং বর্তমান NAV এর গুনফল অর্থাৎ (১৪৮.১৩*১২০)= ১৭,৭৭৫ টাকা। এক্ষেত্রে আপনার লাভের পরিমাণ (১৭,৭৭৫-১২,০০০)= ৫,৭৭৫ টাকা।

SIP investment এর বৈশিষ্ট্য

SIP investment এর বৈশিষ্ট্য অর্থাৎ সুবিধা-অসুবিধা গুলি হল –

  • SIP investment এর ক্ষেত্রে খুব বেশি পরিমাণে বা খুব কম পরিমাণে রিটার্ন পাওয়া যায় না।
  • SIP আমাদের একটি Avarage রিটার্ন দিয়ে থাকে।
  • SIP investment LUMPSUM investment এর তুলনায় কম ঝুঁকিপূর্ণ।
  • SIP investment করার সময় আমাদের মার্কেট সম্পর্কে বেশি রিসার্চ করার প্রয়োজন নেই যেকোনো সময় SIP ইনভেস্টমেন্ট করতে পারি।
  • যদি আপনি শর্ট টার্মের জন্য ইনভেস্টমেন্ট করেন তাহলে আপনি কম রিটার্ন পাবেন বা নেগেটিভ রিটার্নও পেতে পারেন অর্থাৎ শর্ট টার্মের ইনভেস্টমেন্টের ক্ষেত্রে ঝুঁকির পরিমাণ বেশি।
  • যদি আপনি লং টার্মের জন্য ইনভেস্টমেন্ট করেন তাহলে আপনি বেশি পরিমাণে রিটার্ন পাবেন অর্থাৎ শর্ট টার্মের ইনভেস্টমেন্টের ক্ষেত্রে ঝুঁকির পরিমাণ কম।
  • যদি আপনি নতুন হন তাহলে SIP investment এর মাধ্যমে আপনার বিনিয়োগ journey শুরু করতে পারেন।

আরও পড়ুন>>পি.পি.এপ না মিউচুয়াল ফান্ড কোনটি আপনার জন্য ভালো

এই ধরনের অর্থনীতি সম্পর্কিত তথ্য সহজ বাংলা ভাষায় পেতে আমাদের টেলিগ্রাম এবং হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হন 👇

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপJoin Us
আমাদের টেলিগ্রাম গ্রুপJoin Us
আমাদের ফেসবুক পেজFollow Us
Google নিউজে ফলো করুনFollow Us

আরও পড়ুন>>২০২৩ সালে কোথায় বিনিয়োগ করা উচিত? মিউচুয়াল ফান্ড, স্টক না গোল্ড